সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনা সংক্রমণের মধ্যে চলতি বছরের এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়া হবে কিনা- তা নিয়ে শিগগিরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

আর পরীক্ষা নেওয়া না হলে তার বিকল্প কী হতে পারে তা নিয়েও কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৫ জুন) ঢাকার অদূরে কেরানীগঞ্জের জাজিরা মোহাম্মাদিয়া আলীয়া মাদরাসায় বৃক্ষরোপণ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

প্রতিবছর ফেব্রুয়ারির শুরুতে এসএসসি এবং এপ্রিলের শুরুতে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু করা হয়। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে গতবছর এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়া যায়নি, জেএসসি-এসএসসির ফলের ওপর ভিত্তি করে ফল দেওয়া হয়েছে। এবছর এসএসসি এবং এইচএসসি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়নি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে তারা চেষ্টা করে যাবেন। এ জন্য আরও কিছুদিন দেখতে হবে। যদি একেবারেই সম্ভব না হয়, তাহলে বিকল্প অনেক কিছু চিন্তা করার আছে। পরিস্থিতি কী হতে পারে, তা চিন্তা করা হচ্ছে। সব রকম পরিস্থিতি চিন্তা করেই কী কী সম্ভাব্য বিকল্প থাকতে পারে, তা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। পরীক্ষা নেওয়া গেলে নেওয়া হবে। আর যদি পরীক্ষা না নেওয়া যায়, তাহলে বিকল্প মূল্যায়ন কী হতে পারে, তা নিয়ে ভাবছেন।

পরীক্ষার বিকল্প নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অনেক রকম চিন্তা আছে। কিন্তু পরীক্ষা হবে কি না, তা এ মুহূর্তে বলে দেওয়া যাবে না। তবে শিগগিরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। শিক্ষার্থীদের বলবো, তারা যেন পড়াশোনা থেকে দূরে সরে না যায়। পরীক্ষা না হলেও পরবর্তী ক্লাসের পড়াশোনা বোঝার জন্য পড়াশোনা করতে হবে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম