সংবাদ শিরোনাম

 

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে লকডাউন শিথিল করায় বাড়ি ফিরছেন সাধারণ মানুষ। এ অবস্থায় সড়কে গণপরিবহনের চাপ বাড়ায় গত কয়েকদিন ধরে ভোররাত থেকেই ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে রবিবার (১৮ জুলাই) ভোর থেকেই মহাসড়কের ২০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন ঘরমুখো মানুষ। এছাড়াও উত্তরবঙ্গ থেকে কোরবানির পশু ঢাকায় নিতে গিয়েও ভোগান্তিতে পড়ছেন খামারি ও ব্যবসায়ীরা।

জানা গেছে, ঈদ যতই ঘনিয়ে আসছে ততই এ সড়কের যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে গণপরিবহন খুলে দেওয়ার পর থেকেই এ সড়কে প্রতিদিন যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। আজও মহাসড়কের টাঙ্গাইল অংশের রাবনা বাইপাস থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্বপাড় পর্যন্ত যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। কিছুটা জট ছুটলেও আবার থেমে যাচ্ছে, এভাবেই চলছে গাড়ি।

যানজটের কারণে চালক ও যাত্রীদের পোহাতে হচ্ছে চরম ভোগান্তি। এছাড়াও কোরবানির পশু নিয়ে উত্তরাঞ্চল থেকে ঢাকা অভিমুখে যাত্রা করা ব্যবসায়ীরা পড়েছেন চরম বেকায়দায়। তবে ঢাকামুখী যানবাহনের চাপ অনেকটাই কম বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে মহাসড়কে স্বাভাবিকের চেয়ে তিনগুণ বেশি পরিবহন, দফায় দফায় বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায় বন্ধ ও সিরাজগঞ্জ অংশে পরিবহনগুলো চলাচলে বাঁধাপ্রাপ্ত হওয়াকে দায়ী করছে পুলিশ প্রশাসন।

এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইয়াসির আরাফাত বলেন, মহাসড়কে ভোর থেকে গাড়ির চাপ রয়েছে। স্বাভাবিক দিনের চেয়ে মহাসড়কে গাড়ি তিনগুণ বেড়ে গেছে। গতকালও সারাদিন মহাসড়কের টাঙ্গাইলের রাবনা বাইপাস থেকে বঙ্গবন্ধু সেতূপূর্ব পর্যন্ত যানবাহনের ধীরগতি ছিল। আজও যানজট রয়েছে। যানজট নিরসনে পুলিশ কাজ করছে বলে জানান তিনি।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম