সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক : দলকে নেতৃত্ব না দিলে হয়তো জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি খেলতেন না তামিম ইকবাল। যেমনটি ছিলেন না একমাত্র টেস্টে ও থাকবেন না আসন্ন তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে। হাঁটুর ইনজুরির কারণে প্রায় ৮ সপ্তাহের বিশ্রাম নিতে হবে তামিমকে। এজন্য ঘরের মাঠে আসন্ন অস্ট্রেলিয়া ও নিউজ্যলান্ডের বিপক্ষে সিরিজও খেলা হবে না তার। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে শঙ্কা থাকলেও ‘ম্যানেজ’ করে খেলছেন টাইগারদের ওয়ানডে ফরম্যাটের দলপতি।

মূলত ওয়ানডে সুপার লিগের পয়েন্টের সমীকরণের জন্যই এই সিরিজ খেলছেন তামিম। শুরুর দুই ম্যাচে অবশ্য সুবিধা করতে পারেননি এই বাঁহাতি ওপেনার। প্রথম ম্যাচে শূন্য হাতে ফেরার পর আগের ম্যাচে ২০ রান করে আউট হন। প্রায় ২ মাস ক্রিকেট থেকে দূরে থাকার ঠিক আগের ম্যাচটিতে সেঞ্চুরি তুলে নিলেন তিনি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে ২৯৯ রান টপকাতে নেমে ৮৭ বলে শতকের দেখা পান তামিম।

বাংলাদেশের ইনিংসের ৩০তম ওভারে টেন্ডাই চাতারার করা প্রথম বলটি ছিল ফুল লেংথের। সেটি সজোরে ড্রাইভ করেন তামিম, ফিল্ডারের ভুলে বল চলে যায় বাউন্ডারিতে। তামিম পৌঁছে গেলেন মাইলফলকে।

১১ ম্যাচ পর শতকের দেখা পেলেন তামিম। এর আগে নিজের সবশেষ সেঞ্চুরিটি করেছিলেন ২০১৯ সালের মার্চে। সিলেটে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের শেষ দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকান তামিম। আজ (মঙ্গলবার) হারারেতে তুলে নিলেন নিজের ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৪তম সেঞ্চুরি। ৮৭ বলে তিন অঙ্কের কোটা ছুঁতে ৭টি চারের সঙ্গে ৩টি ছক্কা মারেন তামিম।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৩২ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১৯৫ রান।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম