সংবাদ শিরোনাম

 

ময়মনসিংহে পরিচয় গোপন করে অন্য ব্যক্তির নামে নিজের পরিচয় দিয়ে আদালতে হাজিরা দিয়ে ৫ প্রতারক ও সুবিধাবাদি গ্রেফতার হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো, কিশোরগঞ্জের তাড়াইলের সোহেল মিয়া, নান্দাইলের ইন্দারগাতির ওলিউল্লাহ, রফিকুল ইসলাম, সহিদুল ইসলাম ও নুরুল্লাহ। তাদের বিরুদ্ধে আদালতের জিআরও এএসআই আবুল হাসানাত কোতোয়ালী মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আদালত ও কোতোয়ালী পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, নান্দাইল থানার মামলা নং ৩৬(৪)২১, জিআর নং ১১৯/২১ এর পলাতক আসামী সুরুজ মিয়া, আজীম উদ্দিন, মুন্না মিয়া, আবুল কাশেম ও শহর আলী। গত ধার্য তারিখে এই মামলাটি উভয়পক্ষের মধ্যে আপোষ হয়েছে বলে আদালতে অবহিত করা হয়।

বুধবার মামলার অধার্য তারিখে আসামীপক্ষের আইনজীবি তানভীর আহমেদ উল্লেখিত ৫ আসামীকে আদালতে হাজির করেন। আদালতের বিচার ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলাম প্রত্যেক আসামীকে বার বার নাম ধরে ডাকেন। আদালত একই নাম ডাকলে আসামীরা বার বার প্রায় সবাই হাত তুলে আদালতকে জানান দেয়। একজনের নাম ডাকলে সবাই হাত তোলার ঘটনায় আসামীদের প্রতি আদালতের সন্দেহ হয়।

এতে আদালত আসামীদেরকে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র বা অন্য কোন পরিচয়পত্র এনে আদালতে অবহিত করার জন্য আদালত (অফিস চলাকালীন সময় বিকাল ৫ টা) চলাকালীন সময় পর্যন্ত সময় বেধে দেন। এই সময়ের মধ্যে আসামীরা তাদের পরিচয় দেখাতে ব্যর্থ হন। এ অবস্থায় নিজ নিজ পরিচয় গোপন করে ৫ আসামীর নাম ধারণ করে জামিনের চেষ্ঠা করায় আদালতে তাদেরকে গ্রেফতার করার নির্দেশ দেয়।

এ অবস্থায় আদালতের জিআরও এএসআই আবুল হাসানাত বাদি হয়ে উল্লেখিত ৫ জনের নামে অভিযোগ দায়ের করেছে। কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, নিজের পরিচয় গোপন করে ৫ ব্যক্তি অন্য আসামীর নামে আদালতে হাজির হয়ে জামিন নিতে এলে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্তকালে এই প্রতারণার সাথে জড়িত অণ্যান্যদের নাম প্রকাশ পাবে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম