সংবাদ শিরোনাম

 

একাদশ জাতীয় সংসদের ৩৪৫ মহিলা আসন-৪৫ সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য মাসুদা এম রশীদ চৌধুরীর মৃত্যুতে আজ জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংসদের আজকের বৈঠকের শুরুতে এ শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন।
বর্তমান সংসদের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী ২২ জুলাই ১৯৫১ সালে চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার এক সভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। গতকাল সোমবার ভোররাতে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি।
তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তাঁর পিতার নাম আবুল মনসুর ও মাতার নাম মৌসুফা মনসুর। তার স্বামী প্রয়াত অ্যাডভোকেট এ বি এম ফজলে রশীদ চৌধুরী।
মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৬৩ সালে সিনিয়র ক্যামব্রিজ পাশ করেন। চট্টগ্রাম কলেজ থেকে অনার্স এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। তিনি ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়, দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় ও বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানের সাথে ডক্টরেট সম্পন্ন করেন।
মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগে অধ্যাপনা করেন। এছাড়া, তিনি বুয়েটে খন্ডকালীন অধ্যাপনা এবং পিপলস ইউনির্সিটির ডিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
১৯৮২ সালে মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে যুক্ত হন। জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক হন। জাতীয় মহিলা পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক, সাধারণ সম্পাদক ও পরবর্তীতে ১৭ বছর জাতীয় মহিলা পার্টির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন।
মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী চিত্র শিল্পী হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে প্রতি ৪ বছর পর পর অনুষ্ঠিত এশিয়ান আর্ট বিএনএল এর সমন্বয়কারী দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনে দীর্ঘ ২৮ বছর শিশু, কিশোর ও শিক্ষা বিষয়ক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।
মাসুদা এম রশীদ চৌধুরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোভার স্কাউট লিডার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টুরিস্ট সোসাইটির প্রধান উপদেষ্টা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং ক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা ছিলেন। সেই সাথে তিনি একজন নারী উদ্যোক্তা ছিলেন। তিনি সমাজ বিজ্ঞান, নারী উদ্যোক্তা, রাজনীতি, চিত্রকলার ওপর ৭৪টি বই লিখেছেন।
সংসদ সদস্য মাসুদা এম রশীদ চৌধুরীর মৃত্যুতে জাতীয় সংসদ থেকে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করা হয়েছে।
রেওয়াজ অনুযায়ি শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন।
অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন, বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের, সরকারি দলের মোসলিম উদ্দিন আহমেদ, আবদুস সোবহান মিয়া, সিমিন হোসেন (রিমি),ওয়াসিকা আয়েশা খান, বেগম জোহরা আলাউদ্দিন, জাতীয় পার্টির বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা, কাজী ফিরোজ রশীদ, আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, শামীম হায়দার পাটোয়ারি, নাজমা আখতার এবং বিএনপির হারুনুর রশীদ।
শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনা শেষে মরহুমের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালনের পর তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন সরকারি দলের এনামুল হক।
এরপর সংসদের রেওয়াজ অনুযায়ী চলমান সংসদের সদস্য মরহুমা মাসুদা এম রশীদ চৌধুরীর প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করে দিনের অন্যান্য কার্যসূচি স্থগিত করে সংসদের অধিবেশন মুলতবি করা হয়।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম