সংবাদ শিরোনাম

 

ময়মনসিংহ জেলা গোয়ান্দা পুলিশের (ডিবি) প্রায় দুই লাখ টাকা মুল্যের অভিযানে ৭০ বোতল আমদানী নিষিদ্ধ ভারতীয় মদ উদ্ধার হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর রাতে নগরীর গোলপুকুরপাড় ঈশান চক্রবর্তী রোডের জনৈক মোয়াজ্জেম হোসেনের বাসার সামনে থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলো, কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরের সুজন ঘোষ ও স্বদেশী বাজারের তপন পাল।

ডিবির ওসি মোঃ সফিকুল ইসলাম জানান, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে আন্তঃজেলা মাদক ব্যবসায়ীদের একটি চক্র কয়েক খন্ডে বিভক্ত হয়ে ময়মনসিংহ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ মাদক কেনাবেচা নতুন করে বাড়িয়ে দিয়েছে। প্রতি মুহুর্তে বিভিন্ন সীমান্ত পথে এ সব চক্র বিদেশি মদ দেশের অভ্যন্তরে এনে খুচরা ও পাইকারি বিক্রি করছে। যা দুর্গাপূজাকালীন সময়ে আইন শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে মারাত্মক প্রভাব ফেলতে পারে। এমন আশংকায় চৌকস দায়িত্বশীল পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামানের নির্দেশে ডিবি পুলিশ অভিযান শুরু করে।

ডিবির এসআই কামরুল হাসান সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় সোমবার রাতভর অভিযান পরিচালনাশেষে মঙ্গলবার ভোর রাতে গোলপুকুরপাড় ঈশান চক্রবর্তী রোডের জনৈক মোয়াজ্জেম হোসেনের বাসার সামনে থেকে ৭০ বোতাল বিদেশী মদসহ দুই চোরাকারবারীকে গ্রেফতার করে। যার আনুমানিক মুল্য প্রায় দুই লাখ ১০ হাজার টাকা। গ্রেফতারকৃতরা হলো, কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরের সুজন ঘোষ ও স্বদেশী বাজার (বাবলা ঘোষ) এর বাসার ভাড়াটিয়া তপন পাল। তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালী মডেল থানায় ১৯৭৪ সনের বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

 

এদিকে দুর্গাপূজা সামনে থাকায় এই বিপুল পরিমাণ বিদেশী মদ জব্দ এবং মোটা টাকা গচ্ছা যাওয়ার খবরে এক শ্রেনীর মাদক ব্যবসায়ী ও মৌসুমী মাদকসেবী হতাশ হয়ে পড়েছে বলে নগরীতে প্রচার পায়। তবে মাদক ব্যবসায়ী চক্রটি দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে মৌসুমী মাদকসেবিদের মাঝে আনন্দ দিতে আবারো চোরাপথে মাদক ক্রয়বিক্রয়ে তৎপর হয়ে উঠেছে। মাদক ও চোরাকারবারিদেরকে মঙ্গলবার আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম