সংবাদ শিরোনাম

 

নিখোঁজের পর এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এখনো খোঁজ মেলেনি জামালপুর সদর থেকে নিখোঁজ দুই কলেজছাত্রীর। গত ৬ অক্টোবর কলেজ যাওয়ার সময় নিখোঁজ হন ওই দুই কলেজছাত্রী। এতে নানা উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মাঝে দিন কাটছে পরিবারের।

নিখোঁজ দুই শিক্ষার্থী হলেন-উপজেলার দিগপাইত ইউনিয়নের রঘুনাথপুর দিঘুলী গ্রামের দিনমজুর শহিদুল ইসলামের কন্যা সুলতানা আক্তার (১৯) এবং শাহবাজপুর ইউনিয়নের জাফরশাহী টেকিপাড়া গ্রামের আক্তার আলীর কলেজ পড়ুয়া কন্যা রাফি খাতুন (১৮)।

স্থানীয়রা জানান, সুলতানা আক্তার স্থানীয় দিগপাইত ছামছুল হক ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। গত ৬ অক্টোবর সকালে কলেজে ক্লাস করার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন তিনি। একই সময়ে স্থানীয় তুলশীপুর ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী রাফি খাতুনও কলেজে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হন। এরপর থেকেই দুজনের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। পরে নিখোঁজ দুই শিক্ষার্থীর পরিবার থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

স্বজনরা জানান, রাফি খাতুন ও সুলতানা আক্তার ভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থী হলেও দুজনের মাঝে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল। নিয়মিত যোগাযোগ হতো দুই বন্ধুর মধ্যে।

নিখোঁজ সুলতানার বাবা শহিদুল ইসলাম জানান, তাদের মেয়ে পালিয়ে যাওয়ার মতো কোনো কারণ নেই। নিখোঁজ সন্তানকে ফিরে পেতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চান তারা।

সুলতানার মা সুমি বেগম জানান, সুলতানা নিখোঁজ হবার পর সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও সন্ধান পাননি তারা।

এদিকে একই সময়ে পাশাপাশি এলাকার দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিখোঁজের ঘটনা সাধারণ মানুষের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে আতঙ্ক। তাদের উদ্ধারে সবার সহযোগিতা চান তারা।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম জাগো নিউজকে মোবাইল ফোনে জানান, নিখোঁজ দুই শিক্ষার্থীর পরিবার গত ৯ অক্টোবর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। এরপর থেকে তাদের উদ্ধারে সব ধরনের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম