সংবাদ শিরোনাম

 

ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়ায় তৈলজাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য প্যাটার্ন ভিত্তিক একক প্রদর্শনীর আওতায় চলতি আমন মৌসুমে আগাম জাতের ব্রিধান চাষে ভাম্পার ফলন হয়েছে। জানাযায় উপযুক্ত সময়ে সরিষা আবাদ ও বোরো ধান যথাসময়ে রোপণ করার লক্ষ্যে এ বছর উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়ন ও পৌর ব্লকের ২২ জন কৃষককে এই প্রদর্শনী দেন উপজেলা কৃষি বিভাগ। কৃষি অফিসের ব্লক সুপার ভাইজারদের সার্বক্ষণিক পরামর্শ ও দিক নির্দেশনায় ব্রিধান আবাদ করে সংশ্লিষ্ট চাষীরা সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এতে করে ওই সকল কৃষকদের মুখে হাসি ফুটে ওঠেছে। পাশা-পাশি এই ধান চাষে অন্যান্য কৃষকদের মাঝেও ব্যাপক আগ্রহের দেখা দিয়েছে।

সরেজমিনে পৌর সদরের ভালুকজান এলাকায় দেখাযায়, কৃষক আইয়ুব আলীর ৫২ শতক জমিতে আগাম জাতের ব্রি ধান চাষ করা হয়েছে। ক্ষেতটির চতুর্দিকে সমান তালে থোকায় থোকায় ধান দুলছে। আইয়ুব আলীর ক্ষেতে যে ধান হয়েছে তা সুন্দরভাবে ঘরে তুলতে পারলে কাঠাপ্রতি ৫মণ ধান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

পৌর এলাকার কৃষি উপ সহকারী আমিনুল ইসলাম বলেন, প্যাটার্ন ভিত্তিক উক্ত প্রদর্শনী বাস্তবায়নে আমন মৌসুমে ব্রিধান -৭১ রোপণ করা হয়েছে। উক্ত ধানের গড় জীবনকাল ১১৪-১১৭ দিন, আগাম ফসল হওয়ায় উপযুক্ত সময়ে সরিষা আবাদ করে বোরোধান সময় মত রোপণ করা যাবে এবং ফলনের কোন ঘাটতি হবেনা। তাই আমন মৌসুমে কৃষকদের এই ধান চাষ করার পরামর্শ দিয়েছি।

উপজেলা কৃষি অফিসার জেসমিন নাহার বলেন, এ বছরই আমরা প্রথম তৈলের ঘাটতি পূরণ ও সঠিক সময়ে বোরো রোপনের জন্য তৈলজাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষকদের আগাম জাতের ফসল রোপনে উৎসাহিত করেছি। আর এতে করে
ভালো ফসল হওয়ায় কৃষকেরা আনন্দিত ও আমরাও স্বার্থক।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম