সংবাদ শিরোনাম

 

সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্নে গুচ্ছ পদ্ধতিতে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ^বিদ্যালয়, ত্রিশাল ময়মনসিংহে-২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের বি-ইউনিটের (মানবিক শাখা) স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘বি’ ইউনিটে জাককানইবিতে আসন পড়ে ৬ হাজার ৪শত ৯৭ জন পরীক্ষার্থীর। এরমধ্যে উপস্থিত ছিলেন ৬ হাজার ১ শত ৭৮ জন পরীক্ষার্থী। অনুপস্থিত ছিল ৩১৯ জন। উপস্থিতির হার ৯৫ শতাংশের বেশি।

জাককানইবির জিএসটিভুক্ত সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার আহ্বায়ক কমিটি থেকে জানানো হয়েছে, বিশ^বিদ্যালয়ের কলা ভবন, বিজ্ঞান ভবন, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ ভবন ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনের মোট ১১৮টি কক্ষে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় ‘বি’ ইউনিটভুক্ত শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে ডিজিটাল ব্যানারে রোল নম্বর, কেন্দ্র এবং ভবন নির্দেশক দেওয়া হয়। একইসঙ্গে শিক্ষার্থীদের সহায়তা দেওয়ার জন্য সকল ভবনের প্রবেশমুখে প্রক্টরিয়াল, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তরের সদস্যবৃন্দসহ অন্যান্য স্বেচ্ছাসেবকগণ দায়িত্বে ছিলেন। এ ছাড়া জাককানইবি ছাত্রলীগ, সাংবাদিক সমিতি, প্রেসক্লাবসহ বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রীয়াশীল বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনও ভর্তিচ্ছু ছাত্র-ছাত্রীদের সহায়তা করে। এর আগে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য জাকানইবিতে সর্বাতœক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়। ভর্তি পরীক্ষার সময় যেকোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা এড়াতে ও পরীক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পর্যাপ্ত পরিমাণ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়োজিত ছিলেন।

ভর্তি পরীক্ষা শুরু হলে বিশ^বিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান কেন্দ্রের বিভিন্ন কক্ষ পরিদর্শন করেন। এসময় ভিজিল্যান্স উপ কমিটির সদস্য মাননীয় ট্রেজারার প্রফেসর মো. জালাল উদ্দিন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোঃ নজরুল ইসলাম, কলা অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. আহমেদুল বারী, এআইএস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে, দর্শন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রফেসর ড. মুশাররাত শবনম, রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. হুমায়ুন কবীর, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মুহাম্মদ এমদাদুর রাশেদ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ আব্দুল হালিম, কর্মকর্তা পরিষদের সভাপতি মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিনিধিরা পরীক্ষার সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন। মাননীয় উপাচার্য ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য জাককানইবির সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। একইসঙ্গে জাককানইবির ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ত্রিশালের উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

গুচ্ছপদ্ধতির এই ভর্তি পরীক্ষায় ২০টি পাবলিক বিশ^বিদ্যালয় (১. জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ^বিদ্যালয়, ত্রিশাল, ময়মনসিংহ ২. জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়, ঢাকা ৩. ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়, কুষ্টিয়া ৪.শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, সিলেট ৫. খুলনা বিশ^বিদ্যালয়, খুলনা ৬. হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, দিনাজপুর ৭. মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, টাঙ্গাইল ৮. পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, পটুয়াখালী ৯. নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, নোয়াখালী ১০. কুমিল্লা বিশ^বিদ্যালয়, কুমিল্লা ১১. যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, যশোর ১২. বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর ১৩. পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, পাবনা ১৪. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ ১৫. বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল ১৬. রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙ্গামাটি ১৭. রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ, সিরাজগঞ্জ ১৮.বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি,বাংলাদেশ, গাজীপুর ১৯. শেখ হাসিনা বিশ^বিদ্যালয়, নেত্রকোনা ২০.বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, জামালপুর)

উল্লেখ্য, জিএসটিভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের ভর্তি পরীক্ষা দেশব্যাপী একযোগে মোট ২৮টি কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করেছে। পরীক্ষার ফলাফলসহ অন্যান্য সকল তথ্য https://gstadmission.ac.bd এই ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। ইউনিট-সি (বাণিজ্য শাখা) এর ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১ নভেম্বর (দুপুর ১২টা থেকে-১টা) অনুষ্ঠিত হবে।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম