সংবাদ শিরোনাম

 

২০২২ সালের ২৬তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শুরুর অনুমতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী ১ জানুয়ারি থেকে পূর্বাচলের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) বাণিজ্য মেলার আয়োজন করা হবে। এবারের মেলায় চলাচলের সুবিধার্থে থাকছে বিআরটিসি বাস।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্য অনুযায়ী, দেশের করোনা পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি হওয়ায় আগামী ১ জানুয়ারি রাজধানীর পূর্বাচলে অবস্থিত বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে ২৬তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা আয়োজনের প্রস্তুতি শুরু করার জন্য গত ১৩ সেপ্টেম্বর ইপিবিকে চিঠি দিয়েছিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

 

 

ইপিবির তথ্যমতে, ১ জানুয়ারি মেলা শুরুর বিষয়ে অনুমতি চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বরাবর মেলার বিষয়ে সারাংশ পাঠানো হয় এবং পরে প্রধানমন্ত্রী মেলা আয়োজনের অনুমতি দিয়েছেন।

ইপিবির ভাইস চেয়ারম্যান এ. এইচ. এম আহসান এ বিষয়ে নিশ্চিত করে বলেছেন, করোনা মহামারির কারণে গত বছর বাণিজ্য মেলা হয়নি। তাই এবছর প্রধানমন্ত্রীর অনুমতিক্রমে ১ জানুয়ারি থেকে রাজধানীর পূর্বাচলে অবস্থিত বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে ২৬তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার আয়োজন করা হবে।

 

 

এদিকে বাণিজ্য মেলা চলাকালীন মেলা কেন্দ্র করে কুড়িল ফ্লাইওভার থেকে পূর্বাচলের মেলাকেন্দ্রে বিআরটিসির বাস চলাচল করবে। মাসব্যাপী এ রুটে বিআরটিসির ৩০টি বাস চলাচলের চিঠি দিয়েছে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো। ন্যূনতম ভাড়া থাকবে এসব বাসে। এটি ব্যবহার করে সহজেই দর্শনার্থীরা কুড়িল ফ্লাইওভারের নিচ থেকে মেলাকেন্দ্রে যেতে পারবেন।

 

 

 

এ বছর বাণিজ্য মেলার ভেতরে এবং বাইরে মিলিয়ে প্রায় ৩০০ স্টল থাকবে। মেলাকেন্দ্রের ভেতরের অধিকাংশ জায়গা মানুষের চলাচলের জন্য ফাঁকা রাখা হবে। সেই সঙ্গে থাকবে বৃহৎ পরিসরে পার্কিং ব্যবস্থা। মেলার শৃঙ্খলার রক্ষার্থে গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য কেন্দ্রের পাশেই রাজউকের পানির প্ল্যান্ট ভাড়া নেওয়া হয়েছে। সেখানেই এক হাজার গাড়ি পার্কিং হবে।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম