সংবাদ শিরোনাম

 

২২শে জানুয়ারি থেকে ২২শে ফ্রেব্রুয়ারি পর্যন্ত মাঠে গড়াবে বিপিএল ক্রিকেটের অষ্টম আসর। এবার পুরনো নিয়মে আবারও ফিরছে ফ্র্যাঞ্চাইজি। ব্যস্ত আন্তর্জাতিক সূচির কারণে ৭ নয় আসর হবে ৬ দল নিয়ে। দেশিয় ক্রিকেটারদের সুযোগ দিতে এবার বিদেশি ক্রিকেটারের সংখ্যা কমাতে চায় বিসিবি।

 

 

ঘরের মাঠে চার-ছক্কার জমজমাট আসর বিপিএল ফিরছে আবারো। করোনার কারণে হয়নি গেল আসর। তার আগের বছর হলেও ফ্র্যাঞ্চাইজি বাদ দিয়ে সাত স্পন্সর প্রতিষ্ঠান নিয়ে হয়েছিল বিপিএল।

আসছে বছর বিপিএলের অষ্টম আসর পুরনো রূপে আয়োজন করতে চায় বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। অর্থাৎ, আবারও ফিরছে ফ্র্যাঞ্চাইজি। বিসিবির ওয়েবসাইটে দেয়া বিজ্ঞপ্তিতে ৬ টি ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্য মালিকানা স্বত্বের আগ্রহ চাওয়া হয়েছে।

টি টোয়েন্টিতে বেহাল দেশিয় ক্রিকেটাররা। এবার তাদের উন্নতির কথা ভেবে বিপিএলে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ বাড়াতে চায় বিসিবি। এজন্য একাদশে ৪ নয়, ৩ বিদেশি ক্রিকেটার খেলানোর পরিকল্পনা বিসিবির।

 

 

করোনা পরিস্থিতর অবনতি না হলে বিপিএলে এই আসর ঢাকার বাইরেও করার ইচ্ছে বিসিবির।

ঢাকার উইকেটের সমালোচনা গোটা ক্রিকেট বিশ্বে। সেটা গায়ে মাখছে এখন বিসিবিও। আর তাই আসছে বিপিএলে উইকেটের মান ভালো করতে নকশা আঁকছে বোর্ড বলে জানিয়েছেন বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম