সংবাদ শিরোনাম

 

মোঃ রাসেল হোসেন, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এমপি বলেছেন, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ছাত্রীলীগ এগিয়ে যাচ্ছে। যে উদ্দেশ্যে বাংলাদেশদেশ স্বাধীন হয়েছে তা ছাত্রলীগকেই বাস্তবায়ন এবং দেশকে এগিয়ে নিতে দায়িত্ব ছাত্রলীগকেই নিতে হবে। ছাত্রলীগ কোন সংগঠন নয়। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ একটি প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠান জাতীয় নেতৃত্ব সৃষ্টি করে। ছাত্রলীগ অগ্রদ্রুত হিসাবে কাজ করছে। ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দকে আগামীদিনের মূল চালিকা শক্তি হিসাবে কাজ করতে হবে।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে শনিবার বিকালে রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্বরে ছাত্র সমাবেশ ও পূণর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম উপরোক্ত কথা বলেন। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রকিবুল ইসলাম রকিবের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সরকার মোঃ সব্যসাচীর পরিচালনায় প্রধান অতিথি সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম আরো বলেন, ছাত্রলীগ হলো নেতৃত্ব সৃষ্টির প্রশিক্ষন ও হাতে খড়ি। আমরাও ছাত্রলীগের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আজ নেতৃত্ব দিচ্ছি। তাই ছাত্রলীগকে জাতীয় নেতৃত্ব তৈরীকারী সংগঠন গড়ে তুলতে হবে যাতে জাতির আশা আকাঙ্খা পুরণ হয়। তিনি আরো বলেন ছাত্রলীগে কোন সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজদের ঠাই নেই।

এর আগে ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান প্রধান অতিথিকে সাথে নিয়ে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এবং জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলন উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী বক্তব্যে ধর্মমন্ত্রী বলেন, আজকের ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ অনেক শক্তিশালী ছাত্রলীগ এবং অনেক উচুমাপের সংগঠন। যা শত বছরের মধ্যে একটি ভাল, উত্তম ও দায়িত্বশীল কমিটি। তিনি ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দকে উদ্দেশ্য করে বলেন,  ধৈর্য্যরে সাথে এগিয়ে গেলে কোন রাজনৈতিক সংগঠন ছাত্রলীগের ধারে কাছেও আসতে পারবেনা।
pic-3
সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন, অবিভক্ত ময়মনসিংহ ছাত্রলীগের সভাপতি গৌরীপুরের এমপি সাজিম উদ্দিন আহম্মেদ। এছাড়া সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট মোঃ জহিরুল হক, ভালুকা থেকে নির্বাচিত এমপি প্রফেসর ডাঃ এম আমান উল্লাহ, গফরগাওয়ের এমপি ফাহমি গোলন্দাজ বাবেল, ফুলপুর-তারাকান্দার এমপি শরীফ আহম্মেদ, নান্দাইলের এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এহতেশামূল আলম, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, পৌর মেয়র ইকরামূল হক টিটু।

এছাড়া সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আনোয়ারুল হক রিপন, সাজ্জাদ জাহান চৌধুরী শাহীন, এবিএম আক্তারুজ্জামান রবিন, আতিকুর রহমান তুষার প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এম এ কুদ্দুস, শওকত জাহান মুকুল, গোলাম ফেরদৌস জিল্লু, এড ইমদাদুল হক সেলিম, এবিএম নুরুজ্জামান খোকন, উত্তম চক্রবর্তী রকেট, মোফাখ্খার হোসেন খোকন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ১৯৬৯ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত সময়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের দায়িত্ব পালনকারী সভাপতি নাজিম উদ্দিন আহম্মেদ এমপি ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এমপি সহ সকল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণকে বর্তমান ছাত্রলীগের কমিটির পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
ময়মনসিংহে ছাত্রলীগের সমাবেশ ও পুনর্মিলনী সফল করতে জেলার ফুলবাড়ীয়া, ত্রিশাল, হালুয়াঘাট, গফরগাওসহ বিভিন্ন উপজেলা, আনন্দ মোহন কলেজ, মেডিকেল কলেজ, পলিটেকনিকেল কলেজসহ একাধিক কলেজ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বিশাল র‌্যালী সহকারে সমাবেশে যোগ দেয়। ফলে সমাবেশস্থল রেলওয়ে কৃষ্ণচূড়া চত্বর কানায় কানায় ভড়ে যায়।
pic-04
এর আগে শনিবার সকালে জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এমপি ময়মনসিংহে আনন্দমোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের নবনির্মিত ছাত্রী নিবাস সৈয়দা নাফিছা ইসলাম হল  আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্ভোধন করেন। এ সময় জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এডভোকেট জহিরুল হক, নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি, কলেজ অধ্যক্ষ মোঃ জাকির হোসেন, জেলা উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, কলেজের শিক্ষক,শিক্ষার্থী, আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ সহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। পরে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম আনন্দ মোহন কলেজ আয়োজিত সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্য রাখেন। সভায় আনন্দ মোহন কলেজেরে পক্ষ থেকে কলেজ অধ্যক্ষ মোঃ জাকির হোসেন সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে ক্রেস্ট প্রদান করেন। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ৫ কোটি ৬ লক্ষ টাকা ব্যায়ে নব নির্মিত ভবনটির নির্মান কাজ সম্পন্ন করেছে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম