সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : পৌষ মাসের শেষে এসে কিছুটা শীতের দেখা মিলল। দেশের উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে মাঝারি থেকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। রাজধানীসহ দেশের অন্যান্য স্থানেও কয়েকদিনের তুলনায় তাপমাত্রা কমে গেছে।

এবার পৌষে স্বাভাবিক শীত পড়েনি। পুরো ডিসেম্বর মাসজুড়ে দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি তাপমাত্রা ছিল। রবিবার শীত ঋতুর প্রথম মাস পৌষের ২৫ তারিখ।

আবহাওয়া অধিদফতর রবিবার (৮ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় আবহাওয়ার প্রতিবেদনে জানিয়েছে, শ্রীমঙ্গল, রাজশাহী, পাবনা, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম, পঞ্চগড়, যশোর এবং চূয়াডাঙ্গা অঞ্চলের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

উচ্চ শীতল বায়ু নিচে নেমে আসায় শীত বেড়ে গেছে জানিয়ে আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘এ শীতের প্রকোপ স্থায়ী হবে না। তবে চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে তাপমাত্রা আবার কমে যেতে পারে।’

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, বাতাসের তাপমাত্রা ৬ থেকে ৮ ডিগ্রির মধ্যে হলে মাঝারি ও তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রির বেশি থেকে ১০ ডিগ্রির মধ্যে হলে তাকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বলে। তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে হলে তাকে বলে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ।

রবিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময়ে রংপুর বিভাগের দিনাজপুরে ৯ দশমিক ৬, ডিমলায় ৯ দশমিক ১, সৈয়দপুরে ১০, রাজারহাটে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল।

এ ছাড়া রবিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল চুয়াডাঙ্গায় ৮ দশমিক ৭, শ্রীমঙ্গলে ৮ দশমিক ৮, যশোরে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

ঢাকায় শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪ দশমিক ৫ থাকলেও রবিবার তা নেমে হয়েছে ১৩ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

রবিবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকার কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

গত ২ জানুয়ারি দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস দিতে আবহাওয়া অধিদফতরের গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি চলতি মাসের পূর্বাভাসে জানিয়েছে, সার্বিকভাবে জানুয়ারি মাসেও দিন ও রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি থাকতে পারে। তবে এ মাসে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে একটি মাঝারি বা তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। অন্যত্র ১ থেকে ২টি মৃদু বা মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম