সংবাদ শিরোনাম

 

কিশোরগঞ্জ সংবাদদাতা, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : পৌষের শেষে শীত জেঁকে বসেছে কিশোরগঞ্জে। জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বিশেষ করে হাওর অধ্যুষিত এলাকায় শীতের প্রকোপটা একটু বেশিই। দিন কয়েক আগেও দুয়ারে কড়া নাড়ছিল শীত।

এখন আর শব্দ করে নয়, একেবারে ঠকঠক কাঁপুনি দিয়েই ঘটেছে শীতের আগমন। শীতের প্রোকোপে জেলায় শিশু বৃদ্ধসহ অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। সদর ও উপজেলা হাসপাতালে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। খেটে খাওয়া ও কর্মমুখী মানুষরা পড়েছেন বিপাকে। কুয়াশার কারণে যানবাহন চলাচলেও বিঘœ সৃষ্টি হচ্ছে।  নারী, বৃদ্ধ ও শিশুরা বেশি কষ্টে আছেন।

এদিকে, শীতার্ত মানুষদের মাঝে প্রশাসন, বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তি উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে।

হিমালয় পাদদেশীয় উত্তরাঞ্চলের একেবারে উত্তরের জেলাগুলোতে শীত এসেছে কিছুটা আগেই।

বাঙালির জীবনে ঋতু বদলের অনেক রূপ আছে। শীতের রূপ বদলে দেয় কুয়াশা। সঙ্গী  হয়ে আসে শিশির। জলবায়ু বিশেষজ্ঞগণ বলছেন, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে ধুলোবালির এতটাই আধিক্য যে, ধুলোমেঘের সৃষ্টি হয়ে সূযের আলো উর্ধাকাশ থেকে সহজে নামতে পারে না। আকাশে ধুলোর অস্তরণ জমে।

ডিসেম্বরের মধ্যভাগে তা পূর্বদিক থেকে আসতে শুরু করে। শৈত্যপ্রবাহের অন্যতম কারণ এই ধুলোমেঘ। বিশ্ব পরিবেশ বিজ্ঞান সমিতি ও ভারতের যৌথ গবেষণায় এমন প্রমাণ মিলেছে।

শীতের সময়টায় সন্ধ্যা খুব দ্রুত চলে আসে। বিকাল ও সন্ধ্যার ব্যবধান এতটাই কম যে দিনের দ্বিতীয় ভাগ প্রথম ভাগের চেয়ে সঙ্কুচিত।
নিয়ামতপুরের বাসিন্দা মনির হোসেন ঢাকাটাইমসকে জানান, এবারের পৌষের শীতের প্রকোপে সাত সকালে ঘুম থেকে ওঠতে পারেন না। শীতের কারণে ঠিকমত কাজে যেতে পারছেন না।

দিন মজুর কালাম বলেন, প্রতিদিন সকালে ওঠেই রুটি রোজগারের তাগিতে ছুটে বেড়াতে হয়। কিন্ত পৌষের শীতের কারণে কাজে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে।

কিশোরগঞ্জ জেলা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা.লিমন চন্দ্র ধর (জয়) ঢাকাটাইমসকে জানান, শীত জনিত রোগে ৬৫ জন শিশু হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

সিভিল সার্জন ডা.মো.হাবীবুর জানান, শীত জনিত রোগে আক্রান্তদের যথাযথ সেবা দিতে চিকিৎসকরা সচেতন রয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মো.আব্দুল্লাহ আল মাসউদ জানান, ইতোমধ্যে শীতার্ত মানুষের মধ্যে ৩ শতাধিক কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। কিশোরগঞ্জের রেলওয়ে স্টেশন, আখরাবাজার, পাগলা মসজিদের সামনেসহ বিভিন্ন স্থানে রাতেও হত দরিদ্র ও পথ শিশুদের মধ্যে এসব কম্বল বিতরণ করা হয়।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম