সংবাদ শিরোনাম

 

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি : ৫২তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে। এবারের ইজতেমার প্রথম পর্বে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলেছে পুলিশ। সেই সাথে এবারই প্রথম বিশ্ব ইজতেমার চার পাশে এবং বাইরে সিসি টিভির আওতায় আনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন-অর-রশীদ।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে নির্মিত পুলিশের প্রধান কন্ট্রোল রুমের মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এক ব্রিফিংয়ের তিনি এসব কথা বলেন।

পুলিশ সুপার জানান, বৃহস্পতিবার থেকেই ছয় হাজারের অধিক পুলিশ সদস্য ইজতেমা ময়দান ও এর আশপাশের এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে। এবার প্রথম ইজতেমা ময়দানে প্রতিটি খিত্তায় সাদা পোশাকে পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছে। এজতেমা ময়দান ও এর আশপাশের এলাকায় কোন অস্থায়ী দোকান এবং হকার বসতে দেয়া হবে না। ইজতেমা ময়দানের আশপাশে প্রতিটি মোড়ে, প্রবেশ পথে ও গলিতে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। এবার প্রথম বিশ্ব ইজতেমা ময়দান  ও এর আশপাশের এলাকায় পর্যাপ্ত সিসি ক্যামেরা স্থাপনের মাধ্যমে সিটি টিভির আওতায় আনা হয়েছে। ইজতেমায় আগত বিদেশি মুসল্লিদের জন্য পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য ও সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ নিয়োজিত করা হয়েছে।

তিনি জানান, ইজতেমা উপলক্ষে পুলিশের অত্যাধুনিক স্ট্রাইকিং মোবাইল টিম রয়েছে। পুলিশের একটি প্রধান কন্ট্রোল রুম ও ৫টি সাব-কন্ট্রোল রুম থেকে সিটি টিভির মাধ্যমে ইজতেমা ময়দান ও এর আশপাশের এলাকার নিরাপত্তা পরিস্থিতি সার্বক্ষণিক  পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। পুলিশের পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থায় প্রতিটি স্তরে একজন করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দায়িত্ব পালন করছেন। ইজতেমা ময়দানে মুসল্লিদের নিরাপত্তা দিতে পুলিশ প্রস্তুত রয়েছে।

আগত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে পুলিশ সুপার বলেন, মুসল্লিরা যদি কোন সমস্যায় পড়েন- তবে তারা যেন পুলিশের শরণাপন্ন হন। পাশাপাশি পুলিশ সদস্যদের প্রতি অনুরোধ থাকবে, তারা যেন মুসল্লিদের সাথে ভাল আচরণ করেন। সেবার মানসিকতা নিয়ে পুলিশ সদস্যরা যেন এগিয়ে যায়।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম