সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা ছাড়াও উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় ২২টি হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে নেতৃত্ব দিয়েছে মো. জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী ওরফে সুভাষ ওরফে শান্ত ওরফে টাইগার ওরফে আদিল ওরফে জাহিদ।

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা ছাড়া জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী আরও যেসব হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে নেতৃত্বে দিয়েছে সেগুলোর মধ্যে জাপানি নাগরিক হোসি কোনিও হত্যা, টাঙ্গাইলের দর্জি নিখিল হত্যা, পাবনার পূরোহিত নিত্তরঞ্জন পান্ডে হত্যা, রংপুরের মাজারের খাদেম রহমত আলী হত্যা, কুষ্টিয়ার হোমিও চিকিৎসক সানাউর হত্যা, পঞ্চগড়ের পুরোহিত যজ্ঞেশ্বর হত্যা, দিনাজপুরের হোমিও চিকিৎসক ধীরেন্দ্রনাথ হত্যা এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকীর হত্যা অন্যতম।

রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে শনিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব তথ্য জানান ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার ও কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটি) ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম।

এর আগে, শুক্রবার রাতে সিটির একটি দল টাঙ্গাইল জেলার এলেংগা বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধীকে আটক করে।

আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদের তথ্য উল্লেখ করে মনিরুল ইসলাম বলেন, সে নব্য জেএমবির একজন শীর্ষ নেতা। এ ছাড়াও নব্য জেএমবির প্রধান সমন্বয়কারী তামিম আহমেদ চৌধুরীর ঘনিষ্ঠ সহযোগী ও উত্তরবঙ্গের সামরিক কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিল। সম্প্রতি উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় হিন্দু পুরোহিত, খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বী ও বিদেশী হত্যা এবং শিয়া মসজিদে হামলাসহ মোট ২২টি হত্যাকাণ্ডে পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে সে নেতৃত্ব দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, তামিম চৌধুরী ও নুরুল ইসলাম মারজানের সাথে গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা পরিকল্পনায় সে সরাসরি জড়িত ছিল। গুলশান হামলার জন্য অপারেশনাল হাউস হিসেবে ব্যবহৃত বসুন্ধরার বাসায় এক সপ্তাহ অবস্থান করে অংশগ্রহণকারী দলের সবাইকে সে হামলায় অংশগ্রহণের জন্য চূড়ান্তভাবে প্রস্তুত করে।

সিটি ইউনিটের প্রধান বলেন, নব্য জেএমবিতে যোগদানের আগে সে জেএমবির শূরা সদস্য ডা. নজরুল ইসলামের সহযোগী হিসেবে জেএমবির কার্যক্রমের সাথে সম্পৃক্ত ছিল। গুলশান হামলার পর গ্রেফতার এড়াতে দেশের বিভিন্ন স্থানে সে আত্মগোপনে থাকে। তার দেওয়া তথ্য যাচাই-বাছাই চলছে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম