সংবাদ শিরোনাম

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের উত্তরপ্রদেশে স্কুলবাসের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষে ২৫জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উত্তরপ্রদেশের ওটাহ এলাকার আলিগঞ্জে ঘটে যাওয়া এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অর্ধশতাধিক।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, বাসটি জেএস বিদ্যা পাবলিক স্কুলের৷ জুনিয়র কেজি থেকে সপ্তম শ্রেণির স্কুল শিক্ষার্থীদের নিয়ে যাওয়া-আসা করতো বাসটি।

শিক্ষার্থীদের নিয়ে স্কুলে আসার পথে আজ সকালে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিপরীত দিক থেকে আসা দ্রুত গতির এক ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি ধাক্কা লাগে। বাসটি উল্টো গেলে তাতে আগুন ধরে যায় ৷ অপরদিকে রাস্তার পাশে থাকা গর্তে পড়ে যায় ট্রাকটি। ক্রেন দিয়ে তোলা হচ্ছে ট্রাকটি।

স্থানীয়রা গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে ৷ পরে উদ্ধাকারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারকাজ শুরু করেছে৷ আহত শিক্ষার্থীদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, আটজন শিশুর ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে৷ বাকিদের হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করা হয়েছে ৷ বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে ৷ ফলে বাড়তে পারে মৃতের সংখ্যা ৷

এদিকে উত্তরপ্রদেশে প্রবল ঠান্ডার জন্য তিনদিন স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছিল প্রশাসন৷ কিন্তু এরপরও কেন স্কুল খুলে রাখা হয়েছিল সে বিষয়ে প্রশ্ন উঠছে।

উত্তরপ্রদেশের ডিজিপি জাভেদ আহমেদ বলেন, ‘প্রশাসনের নির্দেশ উপেক্ষা করে স্কুল খোলা রাখার জন্য প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। দুই ডজনেরও বেশি শিশুর মৃত্যু হয়েছে। আহত শিশুদের উদ্ধার এখন প্রথম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। উদ্ধার অভিযান চলছে। স্কুলের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিহতদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, ‘উত্তরপ্রদেশের ওটাহ অঞ্চলে ঘটে যাওয়া দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের প্রতি আমি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। প্রার্থনা করি আহত শিশুরা যেনো দ্রুতই আরোগ্য লাভ করে।’


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম