সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : জলবায়ু পরিবর্তনে যে ক্ষতির মুখোমুখি বিশ্ববাসী তা সবাইকে ভাগ করে নিতে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেছেন, সুখী সমৃদ্ধ বিশ্ব গড়তে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি মোকাবেলায় সবাইকে দায়িত্ব ভাগ করে নেয়ার কোনো বিকল্প নেই।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বার্ষিক সভায় স্থানীয় সময় বুধবার সুইজারল্যান্ডের ডাভোস কংগ্রেস সেন্টারে ‘লিডিং দ্য ফাইট এগেইনস্ট ক্লাইমেট চেঞ্জ’ শীর্ষক প্ল্যানারি সেশনে শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী ইরনা সোলবার্গ, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট আল গোর, এইচএসবিসি গ্রুপের প্রধান নির্বাহী স্টুয়ার্ট গালিভার এই সেশনে আলোচনায় অংশ নেন।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও হস্তান্তরে অলাভজনক মডেল নেয়ার ওপর গুরুত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশকে ‘পরিবেশবান্ধব প্রবৃদ্ধির’ পথে নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রতিশ্রুত জলবায়ু অর্থায়ন নিশ্চিত করতে হবে। এই অর্থের অন্তত অর্ধেক জলবায়ু ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর কাছে যেতে হবে।’

বিশ্ব সম্প্রদায়ের উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, ‘গ্রিন হাউজ গ্যাস নির্গমনে বাংলাদেশের ভূমিকা খুব সামান্য হলেও পরিবেশের ক্ষতির কারণে বাংলাদেশকে চড়া মূল্য দিতে হচ্ছে। লাখ লাখ মানুষকে স্থানান্তরিত হতে হচ্ছে, নিঃশব্দে।’ তিনি বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে আমাদের কৃষক, জেলে ও নারীরা ঝুঁকিতে পড়ছে। তাদের জরুরি সহায়তা প্রয়োজন। কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তার দিকে ভালোভাবে মনোযোগ দেয়া প্রয়োজন। বিশ্ব বাণিজ্য ও গবেষণায় এমন সমাধান বের করতে হবে যাতে জীবন, শস্য, কৃষি ও সম্পদ রক্ষা করা যায়।’

জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি মোকাবেলায় প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে অনুসমর্থন জানিয়েছে এই আশা নিয়ে যে, বিশ্ব সম্প্রদায় যৌথ সমৃদ্ধির এই প্রচেষ্টায় তাদের দায়িত্বটুকু পালন করবে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিতে থাকা স্বল্প আয়ের দেশগুলোকে রক্ষার জন্য প্যারিস চুক্তিকে অবশ্যই কার্যকর করতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের (ডাব্লিউইএফ) ৪৭তম বার্ষিক সভায় যোগ দিতে পাঁচ দিনের সরকারি সফরে স্থানীয় সময় সোমবার সকালে সুইজারল্যান্ড পৌঁছেন। ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরামের (ডাব্লিউইএফ) নির্বাহী চেয়ারম্যান প্রফেসর ক্লাউস সোয়াবের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথম বাংলাদেশি নির্বাচিত নেতা হিসেবে এই ফোরামে যোগ দিতে গিয়েছেন।

সুইজারল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলীয় আল্পস অঞ্চলে গ্রাউবান্ডেনে পার্বত্য রিসোর্ট ডাভোসে আগামী ১৭ থেকে ২০ জানুয়ারি চার দিনব্যাপী এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবারের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে- ‘প্রতিবেদনশীল এবং দায়িত্বশীল নেতৃত্ব’।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম