সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপি আর আন্দোলনে যেতে চায় না জানিয়ে দলের জ্যেষ্ঠ নেতা মওদুদ আহমেদ বলেছেন, নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির সংলাপ ব্যর্থ হলে দেশের মানুষের আন্দোলন করা ছাড়া বিকল্প থাকবে না। তিনি বলেন, ‘সে ক্ষেত্রে আন্দোলনের মধ্যেই এ সমস্যার সমাধান আনতে হবে।’

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এই কথা বলেন। নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে নিয়ে রাষ্ট্রপতির সংলাপের ফলে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন সম্ভব হবে বলে আশা করছেন তিনি। মওদুদ বলেন, Ôবর্তমানে যে আইন আছে তা দিয়েই নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালী করা সম্ভব। আমরা যে প্রস্তাব দিয়েছি তা সব মানতে হবে এমন কোনো কথা নেই বরং সবার মতামত সমন্বিতভাবে গ্রহণ করা যেতে পারে।’

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে সংলাপের বাইরে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিশ্চিত করতে উদ্যোগ দিতেও রাষ্ট্রপতির প্রতি আহ্বান জানান মওদুদ।’ বিএনপি নেতা বলেন,রাষ্ট্রপতি এমন একটি সহায়ক সরকারের কাঠামো তৈরি করবেন যাতে দেশের মানুষ নির্ভয়ে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারে। কোনো রকম কৌশল ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিয়ে কেউ যেন নির্বাচনকে অপরিচ্ছন্ন করার কেউ অপচেষ্টা করতে না পারে।

মওদুদ বলেন, রাষ্ট্রপতি আওয়ামী লীগের হতে পারেন। অনেকেই সন্দেহ করেন আওয়ামী লীগ যা বলবে, তিনি তাই করবেন। এটা চিন্তা করার কোনো দরকার নেই। এ সংলাপের ধারাবাহিকতায় সুষ্ঠু ও শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠন করার পরে তিনি উদ্যোগ অব্যাহত রাখবেন, যাতে আমরা আরও সংলাপে যেতে পারি।

নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের ওপর গুরুত্বারোপ করে মওদুদ বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনকে যতই শক্তিশালী করুক না কেন যদি দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হয় তাহলে কোনমতেই সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না।’


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম