সংবাদ শিরোনাম

 

শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুরে শ্রীবরদী উপজেলার ভেলুয়া ইউনিয়নের চাংপাড়া এলাকায় স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করেছেন স্বামী মমিন মিয়া (৪৫)। অন্যদিকে শুক্রবার সকালে বারারচর এলাকার একটি গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় মমিন মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  তবে এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা এ নিয়ে এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে রহস্য।

নিহত মমিন মিয়া (৪৫) পার্শ্ববর্তী জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার বেনুয়ার চর গ্রামের মৃত সমেজ আলীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার বেনুয়ার চর গ্রামের মমিন মিয়ার সঙ্গে প্রায় ১২ বছর আগে শ্রীবরদীর ভেলুয়া ইউনিয়নের চাংপাড়া গ্রামের চাঁন মিয়ার মেয়ে শিরিন আক্তারের বিয়ে হয়। সম্প্রতি স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দাম্পত্য কলহ দেখা দেয়।

বৃহস্পতিবার সকালে শ্বশুরবাড়িতে মমিন মিয়ার সঙ্গে তার স্ত্রীর ঝগড়া হলে একপর্যায়ে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করে। এতে গৃহবধূ শিরিন আক্তার গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এরপর শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে ভেলুয়া ইউনিয়নের বারার চর গ্রামে গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত অবস্থায় মমিন মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস আলম জানান, গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত অবস্থায় মমিন মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত্যুর বিষয়টি রহস্যজনক। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ শেরপুর জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম