সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, দেশকে গড়ে তোলার জন্য নিজস্ব জ্ঞান ও প্রযুক্তি সৃষ্টি করতে হবে। ইনোভেশনের মাধ্যমেই তা সম্ভব। সার্বিক উন্নয়নের জন্য ইনোভেশন, নতুন নতুন আইডিয়া ও সৃজনশীলতা প্রয়োজন। আমরা চিরকাল জ্ঞান ও প্রযুক্তির আমদানিকারক থাকব না, এক সময় আমরা তা রফতানি করবো।

রাজধানীর পলাশীতে বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস) কার্যালয়ে ‘ওয়ার্কশপ অন ইনোভেশন ইন অ্যাডুকেশন : ক্যাপচারিং বেস্ট প্র্যাকটিসেস ফ্রম দি ফিল্ড’ শীর্ষক কর্মশালায় তিনি এ কথা বলেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়, ক্যাবিনেট ডিভিশন এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রাম যৌথভাবে এ কর্মশালার আয়োজন করে।

জনগণকে সেবা প্রদানের লক্ষ্যে যে কোনো ইনোভেশনকে স্বাগত জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নতুন পদ্ধতি চালু করলে তাতে ভুল হতে পারে। এ থেকে শিক্ষা নিয়ে কাজ করতে হবে। যাতে এ ভুলের পুনরাবৃত্তি না হয়, সেজন্য সবাইকে এটা জানতে দিতে হবে। এসময় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন ইনোভেশন কার্যক্রম সোশ্যাল মিডিয়ায় যথাযথ প্রচারের জন্য তিনি সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ক্যাবিনেট বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলম, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আলমগীর, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. অরুণা বিশ্বাস এবং এটুআই প্রোগ্রামের ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট বিশেষজ্ঞ মানিক মাহমুদ বক্তব্য রাখেন। কর্মশালায় মন্ত্রণালয়, অধিদফতর ও বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, কর্মশালায় শিক্ষাক্ষেত্রের উন্নয়নে ১৩টি নতুন আইডিয়া/ ইনোভেশনের পাইলট প্রকল্পের ফলাফল পর্যালোচনা করা হয়। এর মধ্যে ছয় প্রকল্প রেপ্লিকেটের সিদ্ধান্ত হয়। বাকি প্রকল্পগুলোও পর্যায়ক্রমে রেপ্লিকেট করা হবে বলে সভায় জানানো হয়।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম