সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর : গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে রবিবার (২২ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত হবে ৫২তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত। রাজধানী ঢাকাসহ আশেপাশের জেলার মুসল্লিরা দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমামুখী হচ্ছেন। আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে এ বছরের দুই পর্বের ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) ফজর নামাজের পর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব।

শনিবার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিনের ধর্মীয় আলোচনা বাদ ফজর দিল্লির মাওলানা জামশেদের বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। মুসল্লি, আলেম-ওলামা ও তাবলিগ অনুসারিদের উদ্দেশ্যে সকাল ১০টায় বিশেষ বয়ান শুরু করেন দিল্লি জামে মসজিদের খতিব মাওলানা সা’দ কান্ধলভী।

বাদ যোহর বয়ান করেন বিশ্ব তাবলিগ জামাতের সাবেক আমির মাওলানা যোবায়ের হাসানের পুত্র মাওলানা মুরসালিন। বাদ আছর বয়ান করেন মাওলানা সা’দ এর পুত্র মাওলানা ইউসুফ ও বাদ মাগরিব বয়ান করেন দিল্লি মারকাজের আমির মাওলানা সা’দ।

রবিবার দ্বিতীয় পর্বের তিন দিনের ইজতেমার আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ১১টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে যে কোনো সময় আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্ব মুসলিম জাহানের সুখ, শান্তি, কল্যাণ, অগ্রগতি, ভ্রাতিত্ববোধ কামনা করে বিশ্ব ইজতেমা তাবলিগ জামাতের বিশ্ব আমির ও ইজতেমার শীর্ষ মুরুব্বি (দিল্লি) মাওলানা মুহাম্মদ সা’দ আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন।

দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতে মন্ত্রী পরিষদের সদস্যবৃন্দ, বিরোধী দলীয় নেতৃবৃন্দ, সংসদ সদস্য, দেশী বিদেশী ধর্মপ্রাণ মুসল্লিসহ বিশ্বের প্রায় ৩৫ থেকে ৪০ লাখ মানুষ শরীক হবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

এর আগে গত ১৩ জানুয়ারি শুক্রবার বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় প্রথম পর্ব। আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে ১৫ জানুয়ারি রবিবার শেষ হয় বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

গতবছর ৫১তম বিশ্ব ইজতেমায় বিশ্বের ৮৮টি দেশ থেকে আসা প্রায় ১৮ হাজারেরও অধিক বিদেশী অতিথি টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণ করেছিলেন।

এদিকে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতে মুসল্লিদের অংশগ্রহণ নির্বিঘ্ন করতে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ ও বিকল্প রাস্তার নিদের্শনা দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম