সংবাদ শিরোনাম

 

স্টাফ রিপোর্টার. ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : আজারবাইজানের বাকুতে ২০১৭ সালের ১২-২২ মে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ৪র্থ ইসলামিক সলিডারিটি গেমস। এ গেমসে অংশ গ্রহণের লক্ষ্যে কুস্তি ফেডারেশনের উদ্যোগে চলমান অনুশীলন ক্যাম্পে এবারও ডাক পেয়েছেন ময়মনসিংহের কন্যা শিরিন সুলতানা। তিনি জাতীয় পর্যায়ে ৮বছর ধরেই একাধারে কুস্তিগীর হিসাবে বিজয় মুকুট দখলে রেখেছেন।
শিরিন সুলতানা জানান, প্রিয় মাতৃভূমির লাল-সবুজের বিজয় পতাকা আজারবাইজানে উড়ানোর লক্ষেই ক্যাম্পে নিয়মিত অনুশীলন করে যাচ্ছেন। তিনি আরো জানান গেমসে তার প্রত্যাশা ভালো করা। অনেক বড় আসর নিজের যোগ্যতা যাচাই করার জন্যই সিরিয়াস প্রাকটিস করছেন। তিনি দেশের জন্য অন্তত একটি পদক জিতে আনবেন এমন প্রত্যাশাই করছেন।
তিনি ছাড়াও ফ্রিস্টাইল রেসলিংয়ের এই ক্যাম্পে রয়েছেন আরও ৩জন নারী কুস্তিগীর। তারা হলেন রিনা আক্তার, লাকী আক্তার ও চিং সানু মার্মা। অনুশীলনে ৪জনের মাঝে যে দু’জন ভালো করতে পারবেন, সেই দু’জনই আজারবাইজানের বাকুতে ৪র্থ ইসলামিক সলিডারিটি গেমসে অংশ নেয়ার সুযোগ পাবেন। তবে ছেলে কুস্তিগীর রয়েছেন ১৪জন। তাদের মধ্যে ১০ জন গেমসে অংশ নিবেন। কোচ হাজী মোঃ আশরাফ আলী ও সহকারী কোচ মিজানুর রহমানের তত্ত্বাবধানে চলছে এ প্রশিক্ষণ।
ফ্রিস্টাইল রেসলিংয়ের জন্য ডাক পেয়েছেন মেহেদী হাসান, আলী আমজাদ, আনোয়ার হোসেন ও আল রাজীব। প্রশিক্ষণ শেষে তাদের মধ্যে ২জন যাবেন আজারবাইজানের বাকুতে। জোড়খান রেসলিংয়ের প্রশিক্ষণে অংশ নিয়েছেন বিল্লাল হোসেন, মজুন মারমা, দীপু চন্দ্র রায়, সিরাজুল ইসলাম, সোলেমান মিয়া, সুজন দাস, শরৎ চন্দ্র ও মোখলেছুর রহমান। এসএ গেমসে সিলভার জেতা শিরিন সুলতানা জাতীয় পর্যায়ে স্বর্ণপদক, মহান বিজয় দিবস ও মহান স্বাধীনতা দিবসে স্বর্ণপদক অর্জনে উল্লাসিত ময়মনসিংহবাসী। ময়মনসিংহ অ্যাথলেটিক্স পর্যদের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা রতন সরকার বলেন, শিরিন সুলতানা এ অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া নারী ক্রীড়াবিদদের আরো এ ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে। তাকে অনুসরণ করেই নতুনরা চ্যালেঞ্জিং রেসলিংয়ে উজ্জীবিত হবে।
জাতীয় ক্যাম্পে অংশ নেয়া শিরিন সুলতানা’র আরেক পদকের অপেক্ষায় নবগঠিত বিভাগীয় জেলা শহর ময়মনসিংহের লাখো ক্রীড়ামোদী ও এলাকাবাসী।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম