সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপিকে যাতে প্রত্যাখ্যান করতে না হয় সে ধরনের সার্চ কমিটি করতে রাষ্ট্রপতির প্রতি আহ্বান জানিয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘আপনি সার্চ কমিটি নিয়ে গুরুদায়িত্ব পালন করবেন। না পারলে বিএনপির শক্তিশালী কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামা ছাড়া অন্য কোনো উপায় থাকবে না।’

রাষ্ট্রপতিকে উদ্দেশ্য করে রিজভী বলেন, ‘এবার হবে আপনার অগ্নিপরীক্ষা। আপনি দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগ করেছেন, এখন আপনার কাছে আওয়ামী লীগ বড় হবে, নাকি রাষ্ট্র বড় হবে এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার সময় এসেছে। আপনার যে রাজনৈতিক দল, যে দলটির রাজনীতি করেছেন সেই রাজনৈতিক দলটির ইচ্ছা, আকাঙ্ক্ষার কাছে পরাজিত হবেন নাকি দেশ ও রাষ্ট্র বড় হবে।’

বুধবার দুপুরে সেগুনবাগিচায় এক অনুষ্ঠানে রিজভী এসব কথা বলেন। জাতীয় নাগরিক সংসদ নামের একটি সংগঠন এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

‘আমরা শুনেছি মন্ত্রিপরিষদ নাকি একটি নামের তালিকা পাঠিয়েছে। আমরা জানি না, অফিসিয়ালি এখনো হয়নি। যদি সেই নামগুলো দলীয় মনোভাবাপন্ন হয় যে নামগুলো তারা পাঠাবেন তাহলে আগেই বলা হয়েছে আমরা কখনও সেই নামগুলো মানবো না। আমরা আগে দেখি সার্চ কমিটিতে কী ধরনের নাম আসে, সেক্ষেত্রে বিবেচনা করে জানাবো। কিন্তু সেখানে যদি আওয়ামী লীগের চেতনা ও ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটে বিএনপি সেটি প্রত্যাখ্যান করবে এবং বিএনপির তার সব শক্তি দিয়ে প্রতিরোধের জোর চেষ্টা চালিয়ে যাবে।’

রিজভী বলেন, ‘আমরা অন্যায় ও দুর্বিনীত আকাঙ্ক্ষার কাছে মাথানত করবো না। রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব, শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য সবার কাছে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিদের দিয়ে কমিশন গঠন করবেন।তাদের খোঁজ করার জন্য যে কমিটি হবে তাদেরও নিরপেক্ষ হতে হবে। সেখানে যদি আওয়ামী লীগের প্রতিফলন ঘটে তা কখনো সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে না। এটা হবে একতরফা নির্বাচন। সেটা রকিবুল্লাহ ও গরিবুল্লাহর মতো কমিশনই হবে। এটা কখনোই মেনে নিতে পারছি না।’

সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা তামাশা করছেন। সত্য ঘটনাকে মিথ্যা বলে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করছেন। আবার মিথ্যাকে সত্য বলে চালানোর চেষ্টা করছেন। সত্যের জায়গা মিথ্যা দখল করছে, এটা চলতে পারে না। জনগণের সঙ্গে আপনারা তামাশা করবেন এটা হতে দিতে পারি না। রাষ্ট্রপতি সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে নির্বাচন কমিশন শক্তিশালী ও সার্চ কমিটি করার ব্যাপারে কথা না বলে সরকারি দলের সঙ্গে আলোচনা করলে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে তা রাষ্ট্রপতির জন্য বিব্রতকর।  তিনি ইতিহাসের আলোর পাতায় থাকবেন নাকি অন্ধকারের পাতায় থাকবেন তা তাকেই ঠিক করতে হবে। তার কাছেই আমাদের আবেদন, সরকার আপনার কাছে যে লিস্ট পাঠাবে তা গ্রহণ করবেন না। সবার কাছে গ্রহণযোগ্য ও কারচুপি হবে না, ভোট ডাকাতি হবে না এমন নির্বাচন যারা করতে পারবে এই নিশ্চয়তা নেয়ার দায়িত্ব আপনার (রাষ্ট্রপতি)। যদি এটা না করেন তাহলে প্রমাণ হবে আপনি দেশের নয়, আওয়ামী লীগের রাষ্ট্রপতি।’


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম