সংবাদ শিরোনাম

 

সুমন রায় দুর্গাপুর, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : জেলার দুর্গাপুরে বিদ্যুৎ বিভ্রাট চরমে পৌঁছেছে। চলতি এসএসসি ও ডিগ্রী পরীক্ষার্থীদের পড়া-লেখায় চলে এসেছে চরম স্থবিরতা। ব্যাহত হচ্ছে ইরি মৌসমের কৃষিকাজ।

সাবস্টেশনে বিদ্যুৎ থাকলেও তা বন্ধ করে রাখা হচ্ছে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নর বিদ্যুৎ। অনুসন্ধানে দেখা গেছে, সিস্টেম লস কমাতে পুরস্কার লাভের আশায় ও মটরভ্যান চার্জ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে সুবিধা লাভের আশায় দিনের বেলায় লোডশেডিং এর অজুহাত দেখিয়ে বিদ্যুৎ বন্ধ রাখছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। এছাড়া পল্লী বিদ্যুতের অপরিকল্পিত রক্ষণাবেক্ষণ কাজের অজুহাতে দুর্গাপুরে প্রায় ২০ হাজার গ্রাহকদের দিনের বেলাতেও লোডশেডিং এর কবলে পড়তে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। সংশ্লিষ্ট নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, সিস্টেম লস কমাতে পারলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি তাদের এলাকার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পুরস্কৃত করেন। তাই স্থানীয় কর্তৃপক্ষ পরিকল্পিতভাবে সাব স্টেশনে বিদ্যুৎ থাকতেও ২৪ ঘন্টায় ১৬ থেকে ১৮ ঘন্টা ইচ্ছাকৃতভাবে বিদ্যুৎ বন্ধ করে রাখছে। এসময়ের মধ্যে কমপক্ষে প্রতিদিন ২০ থেকে ২৫ বার বিদ্যুৎ যাওয়া আসা করে। কখনো কখনো বিদ্যুৎ গেলে অপেক্ষা করতে হয় ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা পর্যন্ত। দুর্গাপুরে বিদ্যুতের ব্যবহার বেড়ে যাওয়ায় সব থেকে নিম্নমানের ট্রান্সফরমার ব্যবহৃত হওয়ার ফলে একটু ওভার লোডিং এর কারণে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে ক্ষেত খামারে থাকা কৃষিকাজের মটার। ফলে প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ সরবরাহ থাকলেও বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কবল থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না উপজেলার কৃষক। নষ্ট হচ্ছে হাজার হাজার হেক্টর জমির ইরি ফসল। এতে উপজেলায় বিদ্যুৎ বিভ্রাট এর কারনে ধান উৎপাদনের লক্ষমাত্রা অর্জন তো দুরের কথা, ২৫ভাগ জমিও আবাদ করা অনিশ্চিয়তা দেখা দিয়েছে।  এই মৌসুমে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত না হলে নেত্রকোনা জেলার খাদ্য উৎবৃও হিসেবে খ্যাত দুর্গাপুর উপজেলা নিশ্চিত খাদ্য সংকটের মুখে পড়বে।

এরই দাবী নিয়ে বুধবার চন্ডিগড় ইউনিয়নের শতশত কৃষক দুর্গাপুর প্রেসক্লাবে এসে তাঁদের অসহায়ত্বের কথা সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ সভাপতি মোঃ আলী আসগড়, ঐক্যন্যাপ এর উপজেলা সম্পাদক মোঃ আবুল বাসার, উপজেলা কৃষকলীগ এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল হামিদ সরকার, উপজেলা কৃষকলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক বিজয় সরকার, কৃষক মোঃ রুপন মিয়া, আবুল কাশেম, তারা মিয়া, নজরুল ইসলাম, আব্দুল হেকিম প্রমুখ।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম