সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশে পরিসংখ্যান ব্যুরোর প্রাক্কলিত হিসাব অনুযায়ী, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে দেশের জনসংখ্যা ছিল প্রায় ১৫ কোটি ৯৯ লাখ। ওই অর্থবছরে অতি দারিদ্র্যের প্রাক্কলিত হার ছিল ১২ দশমিক ১ শতাংশ। এ হিসাবে দেশে প্রায় ১ কোটি ৯৩ লাখ মানুষ অতি দরিদ্র।

বুধবার জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে বেগম লুৎফা তাহেরের (মহিলা আসন-৪০) তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের দারিদ্র্যের হার নিরূপণের প্রধান মাধ্যম হলো খানা আয় ও ব্যয় জরিপ। প্রতি পাঁচ বছর পর পর খানা আয় ও ব্যয় জরিপ পরিচালিত হয়। সর্বশেষ খানা ও ব্যয় জরিপ পরিচালিত হয় ২০১০ সালে। ২০১৫ সালে খানা আয় ও ব্যয় জরিপের প্রতিবেদন এখনও প্রকাশিত হয়নি।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসাব অনুযায়ী ২০০০ সালে বাংলাদেশের জনসংখ্যা ছিল ১২ কোটি ৮৪ লাখ। এ সময় উচ্চ দারিদ্র্যের হার ছিল ৪৪ দশমিক ৩ শতাংশ এবং নিম্ন দারিদ্র্যের হার ছিল ২৫ দশমিক ২ শতাংশ। এ হিসাবে দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করত ৫ কোটি ৬৯ লাখ লোক, যার মধ্যে ৩ কোটি ১৪ লাখ লোক ছিল অতি দরিদ্র।

তিনি বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের পরিকল্পিত ও সুষম দারিদ্র্যবান্ধব উন্নয়ন কৌশল গ্রহণের কারণেই দারিদ্র্য হার প্রত্যাশিত মাত্রায় কমে আসছে। বাস্তবায়নাধীন সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার (২০১৬-২০) প্রাক্কলিত অনুযায়ী ২০২০ সাল নাগাদ দারিদ্র্য হবে ১৮ দশমিক ৬ শতাংশ।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম