সংবাদ শিরোনাম

 

আর্ন্তজাতকি ডস্কে : পাকস্তিানে এক নারী আইনপ্রণতো র্পালামন্টেে পুরুষ সহর্কমীদরে হাতে হনেস্তার শকিার হওয়ার পর আত্মহত্যার হুমকি দয়িছেনে। তনিি বলনে, ব্যাপকভাবে প্রচারতি এ ঘটনায় বুঝা গছেে নারী সুরক্ষা আইন সঠকিভাবে র্কাযকর হচ্ছে না।

এনডটিভিরি খবরে বলা হয়, সন্ধিু প্রদশেরে এমপি নুসরাত সাহার আব্বাসী গত শুক্রবার হনেস্তার শকিার হওয়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতক্রিয়িা জানান। তনিি অভযিোগ করনে, প্রাদশেকি মন্ত্রী ইমদাদ পতিাফি র্পালামন্টেে তার নজিরে খাস কামরায় তাকে আসতে বলনে। এরপর তনিি তাকে উদ্দশ্যে করে যৌন উস্কানমিূলক মন্তব্য করনে।

নুসরাত বলনে, তনিি এর তীব্র বরিোধতিা করনে এবং র্পালামন্টেে এর বচিার চান। তবে একজন নারী হয়ওে র্পালামন্টেরে ডপেুটি স্পকিার এ ব্যাপারে কোন পদক্ষপে নতিে অস্বীকৃতি জানান।

এতে নুসরাত হতাশ হয়ে পড়নে এবং একটি ছোট বোতল তুলে ধরে বলনে, এর মধ্যে পট্রেোল আছে এবং কোন পদক্ষপে নয়ো না হলে তনিি তা গায়ে ঢলেে আত্মহত্যা করবনে। শনবিার বভিন্নি পত্রকিার এ ছবি প্রকাশতি হয়।

ঘটনাটি নয়িে সামাজকি গণমাধ্যমে হচৈৈ শুরু হলে দলরে কন্দ্রেীয় প্রধানরা হস্তক্ষপে করনে এবং পতিাফরি ওপর চাপ দনে। অবশষেে পতিাফি র্পালামন্টেে নুসরাতরে কাছে ক্ষমা চান।

নুসরাত আব্বাসী মঙ্গলবার বলনে, এটি এখন শষে হয়ছে।ে তবে ঘটনাটি নারী সুরক্ষা আইন বাস্তবায়ন নয়িে প্রশ্ন তুলছে।েআইনটি বাস্তবায়নে তারা নাটক করছ।ে এমনকি র্পালামন্টে সদস্যরাও লঙ্গি বষৈম্য ও হনেস্তা থকেে রক্ষা পাচ্ছে না।’


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম