সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাইবান্ধা : গাইবান্ধা সদর উপজেলায় তাহসিন ওরফে অর্ণব (৫) নামে এক শিশুকে অপহরণের পর শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে ৩ যুবককে ফাঁসির দণ্ড দিয়েছেন আদালত। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় অপর ৭ জনকে বেকসুর খালাস ঘোষণা করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) দুপুরে গাইবান্ধা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রত্মেশ্বর ভট্টাচার্য এ রায় ঘোষণা করেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, সদর উপজেলার সাহাপাড়া ইউনিয়নের খামার পীরগাছা গ্রামের বিল্টু মিয়ার ছেলে জাহিদুল ইসলাম জাহিদ (২৭), একই গ্রামের মৃত্যু আজগর আলীর ছেলে পাবেল মিয়া (১৯) ও একই গ্রামের রুবেল মিয়া (২৫)।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মহিবুল হক সরকার মোহন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ২০১০ সালের ২৭ জুলাই তাহসিন খামার পীরগাছা গ্রামের নানার বাড়িতে বেড়াতে আসে। ওই দিন বিকেলে জাহিদ, পাবেল ও রুবেল তাহসিনকে অপহরণ করে পরিবারের কাছে মুক্তিপণ দাবি করে। এরপর তাহসিনকে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ ডোবায় ফেলে রাখে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় তাহসিনের বাবা আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এদের মধ্যে ৩ জনকে ফাঁসি ও ৭ জনকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম