সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ভারতে টেস্ট খেলতে যাবে বাংলাদেশ। কিন্তু সেই টেস্ট নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা সহসা নিরসন হওয়ার কোনো লক্ষণ নেই।

হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (এইচসিএ) থেকে সপ্তাখানেক আগে বিসিসিআইকে একটি চিটি পাঠানো হয়। চিটিতে বলা হয়, কেন্দ্রীয় বোর্ড থেকে টাকা জোগাড় করে না দিলে বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতের টেস্ট ম্যাচটি আয়োজন করা সম্ভব নয়।

এই চিঠি ঘিরেই মূলত টেস্টের আকাশে শঙ্কার মেঘ জমেছে। কবে নাগাদ সেই মেঘ কাটবে তা এখনি বলা সম্ভব হচ্ছে না!

হায়দ্রাবাদের রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে ৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়ার কথা সফরের একমাত্র এই টেস্ট ম্যাচটি।

হায়দ্রাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনে (এইচসিএ) এই মুহূর্তে কোনো বোর্ড কমিটি নেই। সম্প্রতি নির্বাচন শেষ হলেও আদালতের নির্দেশের কারণে ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি। এছাড়া হায়দ্রাবাদ বোর্ডের ফান্ডও এখন কমে এসেছে।

মুশফিকরা যাওয়ার আগে টাকা পয়সা যোগাড় করা বোর্ডটির পক্ষে কঠিন কোনো কাজ নয়। তবে কথা হলো সেই কাজটি কে করবেন। কমিটিতে লোকই তো নেই।

ভারতের মূল বোর্ডের নাম বিসিসিআই। সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী তারা হলেও যে প্রদেশে খেলা হয়, তার আয়োজন সাধারণত সেই প্রদেশের বোর্ড কর্তারাই করে থাকেন।

বিসিসিআই’র জেনারেল ম্যানেজার রত্নাকর শেঠি দুইদিন আগে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, ‘যতই সমস্যা থাক, ম্যাচটি ভালোভাবেই শেষ হবে।’

রত্নাকরকেই টেস্ট ম্যাচটি সঠিকভাবে শেষ করার দায়িত্ব দিয়েছে বিসিসিআই। সে কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আসলে কেন্দ্রীয় বোর্ড থেকে এই টেস্টটির দায়িত্ব আমার ওপর ন্যস্ত করা হয়েছে।’

এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিসিসিআইয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাহুল জোহরি।

প্রয়োজন হলে হায়দ্রাবাদ থেকে অন্য কোথাও ম্যাচটি সরিয়ে নেয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

শোনা যাচ্ছিল কলকাতায় ম্যাচটি সরিয়ে আনা হতে পারে। বিসিসিআই থেকে নাকি তেমনই নির্দেশ দেয়া হয়েছে। কিন্তু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল (সিএবি)’র সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি আবার বলছেন, এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না।

‘এ বিষয়ে আমার কোনো ধারণা নেই। যদি শেষদিকে জানানো হয়, তাহলে আমরা আয়োজন করতে পারবো না। ম্যাচ আয়োজন করতে হলে অনেক কাজ সারতে হয়। ’

সৌরভের এই কথায় বোঝা যাচ্ছে, দেশটির কেন্দ্রীয় বোর্ড থেকে এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। ওদিকে সময়ও বেশি নেই।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম