সংবাদ শিরোনাম

 

মোশারফ হোসাইন শেরপুর, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : শেরপুরের ঝিনাইগাতীর ঐতিহ্যবাহী জারুলতলা আদর্শ ক্যাথলিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২৫বছর পূর্তি উপলক্ষে জুবিলী উদযাপন করা হয়েছে। দুদিন ব্যাপি এ অনুষ্ঠান ২৬ও২৭ জানুয়ারী মহাসমারোহে উদযাপন করা হয়। জুবিলী অনুষ্ঠানের প্রথম দিনে ছিল প্রার্থনা ও শোভাযাত্রা। প্রার্থনা পরিচালনা করেন, মরিয়মনগর সাধু জর্জের ধর্মপল্লীর সাবেক বিদ্যালয় পরিদর্শক হিরন মানখিন। চার শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী অভিভাবক ও গ্রামের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা আনন্দ শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন। পরে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন উপস্থিত সকলে। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, শিখা চিছাম, শ্রাবণী মানখিন ও অসীম ম্রং। ২৭জানুয়ারী সকালে পবিত্র খ্রীষ্টযাগ উৎস্বর্গ করেন, মরিয়মনগর সাধু জর্জের ধর্মপল্লীর পালপুরোহিত রেভাঃ ফাঃ সুবল কুজুর সিএসসি। খ্রীষ্টযাগের পর স্বরণিকা উন্মোচন করা হয়। সংবর্ধনা কমিটির আহবায়ক বাদল আজিম’র সভাপতিত্ব উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ফাঃ সুবল কুজুর সিএসসি এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,  ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিএশন (টিডব্লিউএ)ঝিনাইগাতী শাখার চেয়ারম্যান নবেশ খকসী, নলকুড়া ইউপি চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী ফর্সা, গৌরীপুর ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান (মন্টু)। সংবর্ধনায় জারুলতলা আদর্শ ক্যাথলিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সকল প্রাক্তন ও বর্তমান ১৯ জন শিক্ষকদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা স্মারক প্রদান করা হয়। সেই সাথে বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শ্রী রমেন্দ্র কুমার মানখিন, বিদ্যালয়ের জন্য জমিদাতা স্বপ্না মানখিন, বিদ্যালয় পরিচালনা ও সহযোগীতার জন্য তিন ব্যাক্তিকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়। আয়োজক কমিটির আহবায়ক বাদল আজিম বলেন, “আমাদের এই স্কুল ১৯৯২সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। বিভিন্ন চড়াই উৎড়াই অতিক্রম করে এই স্কুল আজ ২৫ বছর পার করলো। আমরা এই স্কুলের মাধ্যমে এলাকার ছোটছোট শিশুদের প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে পেরেছি”। আয়োজক কমিটির সদস্যসচিব এবং বিদ্যালয়ের বর্তমান প্রধান শিক্ষক অসীম ম্রং বলেন, “আমরা এই শিক্ষা কেন্দ্রের মাধ্যমে আমাদের কোমলমতি শিশুদের প্রাথমিক শিক্ষা দিয়ে থাকি। বর্তমানে এই স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন যায়গায় প্রতিষ্ঠিত হয়ে নিজনিজ কর্মক্ষেত্রে সফলতার সাথে কাজ করছে। তাদের স্মৃতিময় বিদ্যাপিঠে স্মরনীয় মুহুর্তগুলো একসাথে উদযাপনের জন্য এবং তাদের সফলতার কথা বর্তমান শিক্ষার্থীদের মাঝে সহভাগিতা করে তাদের উৎসাহ প্রদানের জন্যই এই জুবিলী উৎসব এবং মিলন মেলার আয়োজন”। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের পর বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের নিয়ে শুরু হয় সাংস্কৃতিক উৎসব। এর পর প্রীতি ভোজের মধ্যদিয়ে শেষ হয় জুবিলী উদযাপন অনুষ্ঠান। প্রায় সহস্রাধীক দর্শক শ্রোতা অনুষ্ঠান উপভোগ করে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম