সংবাদ শিরোনাম

 

নেত্রকোণা প্রতিনিধি : তিন দিনব্যাপী নেত্রকোণা জেলা ইজতেমা উপলক্ষে খোলা দোকান-পাটে ভাঙচুরসহ নগদ টাকা খোয়া যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

পুলিশ বলছে, ইজতেমা ফেরত মুসল্লিদের ভিড়ে দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

শনিবার শহরের গজিনপুর এলাকায় দুপুর পৌনে ১টার দিকে এই ঘটনায় পাঁচটি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয় বলে স্থানীয়রা জানায়।

ক্ষতিগ্রস্ত হোটেল দোকানি শহরের সাতপাই এলাকার স্টেশন রোডের আব্দুল কাদির বলেন, ইজতেমা মাঠ থেকে মুসল্লিরা নিজেদের গন্তব্যে ফিরছিলেন। হঠাৎ করে ভিড়ের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়।

দোকানের ভেতরে একদল যুবকসহ সাধারণ মুসল্লিরা  ঢুকে পড়েন। এসময়  দোকানের ক্যাশবাক্সে থাকা নগদ প্রায় চার লাখ টাকা খোয়া যায়। তাছাড়া দোকানের চেয়ার টেবিল ভাঙচুর হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর উপজেলার ঘড়ি ও চশমার দোকানি কালু মিয়া বলেন, তার দোকানে প্রায় ৭০ হাজার টাকার মালামাল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বরিশালের কাপড়ের দোকানি ইব্রাহীম মিয়া বলেন, ভিড়ের চাপে আমার দোকানের ভেতরে মানুষ ঢুকে যাওয়ায় অন্তত ৬০ হাজার টাকার মালামাল নষ্ট হয়েছে।

নেত্রকোণা জেলা ইজতেমা মাঠের জিম্মাদার আব্দুস সাত্তার বলেন, দোকান ক্ষতিগ্রস্তের বিষয়টি আমাদের জানা নেই। তাছাড়া এসব দোকানপাটের দায়িত্ব আমাদের নয়।

নেত্রকোণা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু তাহের দেওয়ান বলেন, ঘটনাটি ওসি ( তদন্ত ) শাহ নূর দেখছেন। তার সাথে কথা বলার জন্যে পরামর্শ দেন তিনি।

পরিদর্শক শাহনূর বলেন, ইজতেমা থেকে মুসল্লিরা ফেরার পথে ভিড় থেকে আকষ্মিকভাবে চাপের সৃষ্টি হয়। তখন মানুষ দোকানের ভেতরে ঢুকে যান। এসময় দোকানের বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ আবু নাসের বলেন, কিছু উশৃঙ্খল লোক এই ঘটনা ঘটিয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে। তবে এই দোকানগুলোও অবৈধভাবে বসেছিল বলেন তিনি।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম