সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামীকাল বুধবার বিকেল ৩টায় অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।এবার ৪০৯টি প্রতিষ্ঠানের মোট ৬৬৩টি ইউনিট নিয়ে বসছে বইমেলা। মেলার সার্বিক দিক তুলে ধরে সোমবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বাংলা একাডেমি কর্তৃপক্ষ।

গত বছরের মতো এবারও বাংলা একাডেমি এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মেলার আয়োজন করা হয়েছে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের অংশকে মোট ১২টি চত্বরে সজ্জিত করা হয়েছে। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ৮০টি প্রতিষ্ঠানকে ১১৪টি এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৩২৯টি প্রতিষ্ঠানকে ৫৪৯টি ইউনিটসহ মোট ৪০৯টি প্রতিষ্ঠানকে ৬৬৩টি ইউনিট বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এবারের মেলায় বাংলা একাডেমিসহ মোট ১৫টি প্রতিষ্ঠানকে ৫ হাজার বর্গফুট আয়তনের ১৫টি প্যাভিলিয়ন বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এবারও বর্ধমান হাউজের দক্ষিণ পাশে ১০০টি লিটল ম্যাগাজিনকে স্টল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। মেলায় বাংলা একাডেমি ৩০ শতাংশ কমিশনে এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ২৫ শতাংশ কমিশনে বই বিক্রি করবে। মেলায় শিশু কর্নার থাকবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। মাসব্যাপী শিশু প্রহরও থাকছে মেলায়।

মেলায় টিএসসি, দোয়েল চত্বর দিয়ে দুটো মূল প্রবেশপথ, বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে তিনটি পথ, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মোট আটটি পথ থাকবে।এবারই প্রথম সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশ ও বের হওয়ার জন্য একটি দৃষ্টিনন্দন নতুন সুপ্রশস্ত গেট নির্মাণ করা হয়েছে বলে জানানো হয়।মেলার নিরাপত্তায় পুলিশ, র্যা ব, আনসার, বিজিবি ও গোয়েন্দা সংস্থার সদ্যস্য নিয়োজিত থাকবেন।

প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে। তবে ছুটির দিন বেলা ১১টায় এবং ২১শে ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টায় মেলা শুরু হবে।

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, মেলার প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন। নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে মেলা প্রাঙ্গণে।সকলের অংশগ্রহণে এবারের মেলা বিগত দিনের চাইতে আরও প্রাণবন্ত হবে বলে আশা করি।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম