সংবাদ শিরোনাম

 

এম এ আজিজ, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম :  ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিন বলেছেন, ময়মনসিংহের সর্বস্তরের রাজনৈতিক সমাজের সহযোগীতা থাকলে অল্প সময়ে বিভাগ উন্নয়নে দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব। আর যদি অসহযোগীতা থাকে তাহলে বিশাল এ প্রকল্প বাস্তবায়নে ধীরগতি পাবে। গতকাল সকালে যুগান্তর পত্রিকার ১৭তম বর্ষপুর্তি ও ১৮তম বর্ষে পদার্পন উপলক্ষ্যে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় কমিশনার উপরোক্ত কথা বলেন। এ সময় তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে বিভাগ দিয়েছেন। সেই সাথে ময়মনসিংহবাসীর কল্পনার বাইরে ময়মনসিংহ বিভাগ উন্নয়নে মহাপরিকল্পনা নিয়ে শুধু বাংলাদেশ নয় বিদেশের অনেকের উন্নত শহরের চাইতেও সুন্দর ময়মনসিংহ শহর গড়তে পরিকল্পনা গ্রহণ ও নির্দেশনা দিয়েছেন। এ জন্য প্রধানমন্ত্রীর ব্রহ্মপুত্র নদের বিপরীতে শহর গড়ার প্রত্যয় নিয়ে এ আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। আর সেই আলোকে ব্রহ্মপুত্র নদের বিপরীতে উন্নত ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহর গড়তে ২০/২৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ের লক্ষমাত্রা নিয়ে কাজ শুরু হয়েছে। বিভাগীয় কমিশনারের নেতৃত্বে ইতিমধ্যেই কমপক্ষে ৩০টি বিভাগীয় দপ্তর নির্মাণে সাড়ে চার হাজার জমি অধিগ্রহণ কাজ শুরু করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, ইতিমধ্যেই ব্রহ্মপুত্র নদের বিপরীত পার্শ্বের সাথে পুরাতন শহরের যোগাযোগ ব্যবস্থা আরো সহজ করতে নদের উপর তিনটি ব্রীজ নির্মাণ করা হবে। যার প্রথম পর্যায়ের কাজ (সমীক্ষা) শেষ হয়েছে।্ এছাড়া নতুন শহরে দেড় ফিট রাস্তার সমীক্ষা কাজও শেষ হয়েছে। অতিি সত্বর এ সকল কাজ শুরুর সম্ভাবনা রয়েছে। এ সময় তিনি বলেন, জমি অধিগ্রহণ নিয়ে জমির মালিকদের মাঝে কেউ কেউ ভুল ধারণার জন্ম দিচ্ছে। এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, কাউকে উচ্ছেদ নয়। জমির মালিকদেরকে ক্ষতিপুরণ বাবদ তিনগুনহারে অর্থ পরিশোধে করা হবে। জমি অধিগ্রহণ সংক্রান্ত ক্ষতিপুরণ বাবদ প্রায় ৫ হাজার টাকা বরাদ্ধ রাখা হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্থদের মধ্য থেকে যাদের জমি রয়েছে তাদেরকে এ এলাকায়ই পুনর্বাসন করা হবে। আর যাদের জমি নেই এমন ক্ষতিগ্রস্থদের খাস জমিতে পুনর্বাসসন করা হবে। তিনি আরো বলেন, এ পকল্পের মধ্যে বিভাগীয় দপ্তর সমুহ ছাড়াও রয়েছে সতস্ত্র বিশ্ববিদ্যালয়, খেলার মাঠ, বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার, লেক ও আধুনিক সবুজে ঘেরা শহর থাকবে। যা শুধু বাংলাদেশ নয় বিশ্বের অনেক উন্নত শহরের চাইতেও আধুনিক ও উন্নত শহর গড়ে উঠবে। তিনি আরো বলেন, ময়মনসিংহ পুরাতন শহরকে বাসযোগ্য করতে নতুন করে ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নতি, পরিস্কার পরিচ্ছনতা কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে। ময়মনসিংহ বিভাগীয় আধুনিক ও উন্নতমানে শহর অল্প সময়ে গড়তে তিনি সকল রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সহযোগীতা কামনা করেন।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম