সংবাদ শিরোনাম

 

জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুরের মেলান্দহে একটি স্কুলে শিক্ষার্থীদের মানবসেতু বানিয়ে তাদের কাঁধ মাড়ানো দিলদার হোসেন প্রিন্সসহ আসামিদেরকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন সংগঠন। দাবি পূরণ না হলে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দেয়া হয় এই মানববন্ধনে।

শুক্রবার সকালে জেলা শহরের শহীদ মিনার চত্বরে বেশ কিছু সংগঠন এই কর্মসূচির আয়োজন করে। ঘন্টাব্যাপী কর্মসূচিতে জামালপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র ওয়ারেছ আলী মামুন, শিশু সংগঠক জাহাঙ্গীর সেলিম, জাসদ নেতা আমির হোসেন, শিশু সুরক্ষার নেত্রী আফরিন খানসহ স্থানীয় রাজনৈতিক ও সাংবাদিক নেতারা বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতি গঠন হয়, মানবতা সৃষ্টি হয়। সে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ ধরনের অনৈতিক কা- হলে জাতি কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে। দাবি অনুযায়ী আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্ত প্রিন্সকে গ্রেপ্তার নাহলে রেল ও সড়ক অবরোধসহ নানা কর্মসূচির ঘোষণা দেয়া হয় মানববন্ধনে।

গত ২৮ জানুয়ারি মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক স্কুলের ক্রীড়া অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের দিয়ে মানব সেতু তৈরি করা হয়। এর উপর দিয়ে হেঁটে যান বিদ্যালয়ের জমিদাতা সদস্য দিলদার হোসেন প্রিন্স। এই ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে যাওয়ায় তোলপাড় শুরু হয় দেশ জুড়ে।

স্কুলের ছাত্র ও শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এই কা-ের হোতা ওই স্কুলেরই শরীর চর্চা বিষয়ক শিক্ষক হাফিজুর রহমান। তার কথাতেই ছাত্ররা প্রিন্সকে কাঁধে চড়িয়েছিলেন। এই শিক্ষক  বলেন, ‘আমরা এটা ডিসপ্লে করেছি। একজন বিপদের সময় একজন বিপদে পড়া লোককে কীভাবে নিয়ে আসতে হবে, সেটাই আমরা প্রদর্শন করেছি। এখানে মানবিকতা বা অমানবিকতার কিছু নেই।’

এই ঘটনায় বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য দিলদার হোসেন প্রিন্স, প্রধান শিক্ষক আছালত জামান ও শরীর চর্চা শিক্ষক হাফিজুর রহমানসহ চার জনের বিরুদ্ধে শিশু আইনের মেলান্দহ থানায় মামলা করেন মেলান্দহ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক।

ছবিটি প্রকাশ হওয়ার পর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে একটি দল বৃহস্পতিবার স্কুল পরিদর্শন করে ছাত্র, শিক্ষক ও স্থানীয় গণমান্যদের সাক্ষাৎকার নিয়েছে। এই কমিটির প্রতিবেদন দেখে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রশাসক শাহাবুদ্দিন খান।

এই ঘটনার পর থেকে এলাকা ছাড়া দিলদার হোসেন প্রিন্স। বৃহস্পতিবার স্কুলের পাশ তার বাড়িতে গিয়েও তাকে পায়নি গণমাধ্যমকর্মীরা।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম