সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ : আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় পুলিশের উপস্থিতিতে সাংবাদিক নিহতের ঘটনায় সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে আধাবেলা হরতাল পালিত হয়েছে। সাংবাদিক হত্যার প্রতিবাদে শাহজাদপুর উপজেলায় আজ শনিবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত অর্ধদিবস হরতাল ডাক দেয় উপজেলা ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগ। এই হরতালে সমর্থন জানিয়েছিলেন স্থানীয় সাংবাদিকেরা।

শনিবার সকাল থেকেই উপজেলা সদরের সব দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, মিল কারখানা ও যান চলাচল বন্ধ ছিল। সরকারি অফিস, আদালত ও ব্যাংক বীমা খোলা থাকলেও জনসাধারণের উপস্থিতি ছিল কম। রিকশা, ভ্যান, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলও চলাচল করতে দেখা যায়নি। এছাড়া পৌর এলাকার কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

শাহজাদপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজাউল হক জানান, হরতালের কারণে শাহজাদপুর পৌর এলাকার বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে পুলিশ  মোতায়েন ছিল। পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল।

শাহজাদপুর পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরুর ব্যক্তিগত শটগানের গুলিতে দৈনিক সমকালের শাহজাদপুর উপজেলা প্রতিনিধি আব্দুল হাকিম শিমুল চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। শুক্রবার দুপুরে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকা নেয়ার পথে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম গোলচত্বর এলাকায় তার মৃতু হয়। সাংবাদিক আবদুল হাকিমের মৃত্যুর খবর শোনার পর তাঁর নানি উপজেলার মাদলা গ্রামের রোকেয়া বেগম (৯০) শুক্রবার রাত আটটার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হন। দ্রুত শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত সাংবাদিক শিমুলের স্ত্রী নুরুন্নাহার রাতে হত্যা মামলাটি করেছেন। এতে মেয়র মিরু ও তার ভাই মিন্টুসহ ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত পরিচয় ২০ থেকে ২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে বলে শাহজাদপুরের ওসি রেজাউল জানান।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম