সংবাদ শিরোনাম

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গোসল করতে দেরি করায় বাবার হাতে শিশু ছেলে খুন হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার।

ভারতীয় গণমাধ্যম এবিপি আনন্দের খবরে বলা হয়, দুপুর ২টার দিকে মাতাল অবস্থায় বাড়ি ফেরেন পেশায় লরির খালাসি সুব্রত রায়। বাড়ি ফিরে জানতে পারেন, তখনও গোসল করেনি ৭ বছর বয়সী ছেলে সুজন।

কেন গোসল হয়নি, সেই প্রশ্ন তুলে সুজনকে উঠোনে জমা করা পাথরকুচির উপর ফেলে পেটে ও বুকে লাথি মারতে শুরু করেন বাবা।

মৃতের মামা বিপ্লব শিকদারের জানান, মাতাল অবস্থায় এসে নিজের ছেলেকে মেরেছে অভিযুক্ত।

বিকেলের দিকে সুজন অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে রায়গঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার তাকে মালদা মেডিকেল কলেজে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সেখানে ছেলেটিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

সুজনের দাদি আরতি রায় জানান, তার ছেলের জন্যই নাতি মারা গিয়েছে। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

পরিবারের অভিযোগ, মাতাল অবস্থায় প্রায়ই ছেলেকে মারধর করতেন ওই ব্যক্তি। শুক্রবার তা চরমে ওঠে। যার ফলে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্র। পুলিশ গ্রেফতার করেছে বাবাকে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম