সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : ইচ্ছা অনুযায়ী আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে চন্দন কাঠের চিতায় দাহ করার চেষ্টা করছেন স্বজনা। তবে এই কাঠ অপ্রতুল হওয়ায় তা সংগ্রহের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন সুরঞ্জিতের খালাতো ভাই জয়ন্ত সেন।

তিনি বলেন, ‘তার (সুরঞ্জিত) শেষ ইচ্ছা ছিল চন্দন কাঠ দিয়ে যেন তাকে দাহ করা হয়। এখন তো এ কাঠ খুব একটা পাওয়া যায় না। তবে সংগ্রহের চেষ্টা চলছে।’

আগামীকাল সোমবার বেলা ১১টায় সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মরদেহ নিজ জেলা সুনামগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হবে। এ দিন বেলা ১টায় তার নির্বাচনী এলাকা শাল্লা এবং বিকেল ৩টায় দিরাই উপজেলায় সাধারণ মানুষ তাদের নেতার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন। দিরাইয়ে তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে।

সুরঞ্জিতের খালাতো ভাই জয়ন্ত বলেন, তিনি (সুরঞ্জিত) মৃত্যুর আগে বলে গেছেন, তাকে যেন চন্দন কাঠ দিয়ে দাহ করা হয়। সে অনুযায়ী চন্দন কাঠ খোঁজা হচ্ছে।

চন্দন একটি সুগন্ধী কাঠ। ভারত, দক্ষিণ এশিয়া, ইন্দোনেশিয়া ও অস্ট্রেলিয়াসহ বিভিন্ন দেশে এই কাঠ বেশি মাত্রায় পাওয়া যায়। সৌন্দর্য চর্চায় নারীদের মধ্যে এই কাঠ ব্যবহারের চল আছে। সেই সঙ্গে এর ঔষধি গুণের কথাও সমাদৃত। ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা, বিশেষ করে দাহ করার ক্ষেত্রে চন্দন কাঠ স্বল্পমাত্রায় হলেও ব্যবহারের চেষ্টা করেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা।

রোববার ভোর ৪টার দিকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান প্রবীণ রাজনীতিবিদ সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম