সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজের দীর্ঘ বিচারক জীবনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চান বলে জানিয়েছেন একমাত্র নারী নির্বাচন কমিশনার (ইসি) বেগম কবিতা খানম। এ ব্যাপারে তিনি সবার দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। দেশের ইতিহাসে কবিতা খানমই প্রথম নারী নির্বাচন কমিশনার।

কবিতা খানম বলেন, ‘দীর্ঘ বিচারক জীবনের যে অভিজ্ঞতা রয়েছে তা আমি এখানে কাজে লাগাতে চাই। যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলার কৌশল আমার জানা আছে।’ তিনি বলেন, ‘দেশের সংবিধান ও আইন সমুন্নত রেখে কাজ করে যাবো।’ তাকে নির্বাচন কমিশনার করায় তিনি রাষ্ট্রপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

দেশের প্রথম নারী নির্বাচন কমিশনার তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালনে দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন।

কবিতা খানমের বাড়ি নওগাঁয়। তাঁর স্বামীও বিচারক ছিলেন। ২০১১ সালে তিনি মারা যান। ২০১৩ সালে কবিতা খানম অবসরে যান। সর্বশেষ তিনি রাজশাহীর জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার বিচারিক জীবনের অভিজ্ঞতা রয়েছে প্রায় ৩১ বছর।

দেশে এ পর্যন্ত ১১ বার নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। ১১ জন প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সাথে ২৩ জন দায়িত্ব পালন করেছেন কমিশনার হিসেবে।কিন্তু এবারই প্রথম কোনো নারীকে নির্বাচন কমিশনের সদস্য করা হলো।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম