সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘বাঘ তাড়ানো শীতের’ মাস মাঘেও দেখা নেই শীতের। শীতকাল শেষ হওয়ার আগেই অনেকটা গরম অনুভূত হচ্ছে। সেই উঞ্চতা আরেকটু বাড়বে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। নতুন খবরে বলেছে, আগামী ৭২ ঘণ্টায় রাত ও দিনের তাপমাত্রা আরও বাড়বে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

আবহাওয়া চিত্রের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়, উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

ঢাকা আবহাওয়া অফিসের উপপরিচালক এ কে এম রুহুল কুদ্দুস বলেন, এবার শীত দেরিতে আসার কারণ গত বছর ডিসেম্বরের প্রথমে দুটি ঘূর্ণিঝড় ‘নাদা’, ‘ভাদ্রা’ সৃষ্টি হয়েছিল। এর ফলে বঙ্গোপসাগরে তাপমাত্রা ছিল উষ্ণ। ফলে আরব মহাসাগর থেকে আসা ঠান্ডা বাতাস বাধা পেয়েছে। এতে শীতের তীব্রতা ছিল কম। আর এখন সূর্যের কিরণ খাড়াখাড়িভাবে পড়ছে বলে তাপমাত্রাও বাড়ছে।

এবার শীতে উষ্ণ তাপমাত্রার জন্য বৈশ্বিক আবহাওয়ার প্রভাবেরও ভূমিকা আছে বলে জানান আরেক আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান। তিনি ঢাকাটাইমকে জানান, বৈশ্বিক তাপমাত্রা একেক সময় একেক রকম হয়ে থাকে। এবার তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় দেশে শীতের তীব্রতা কম ছিল। আবার বাতাসের গতি-প্রকৃতিও একেক সময় একেক রকমের হয়ে থাকে। এবার ঠান্ডা বাতাস ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। নিচ দিয়ে প্রবাহিত হলে বেশি শীত পড়ত। শীত এখন যাওয়ার পথে। সামনে শৈত্যপ্রবাহ আসার সম্ভাবনা নেই বলে জানান তিনি।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম