সংবাদ শিরোনাম

 

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : গুলিতে নিহত সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুলের স্ত্রী নূরুন নাহার রাষ্ট্রায়ত্ব অ্যাসেন্সিয়াল ড্রাগস কোম্পানি লিমিটেডে (ইডিসিএল) উৎপাদন কর্মী হিসেবে চাকরির নিয়োগপত্র হাতে পেয়েছেন।

শুক্রবার দুপুরে শাহজাদপুর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে শিমুলের স্ত্রীর হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেন সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাদপুর-এনায়েতপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিবুর রহমান স্বপন।

এ সময় এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন শাহজাদপুর উপজেলার চেয়ারম্যান আজাদ রহমান, নির্বাহী অফিসার আলিমুল রাজিব, থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম কিবরিয়া, শাহজাদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি বিমল কুন্ডু, শাহজাদপুর সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক ও রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি পিন্টু।

নিয়োগপত্র নেওয়ার সময় সাংবাদিক শিমুলের দুই শিশু সন্তান সাদিক মাহমুদ ও তামান্না মায়ের সঙ্গে ছিলেন।

এর আগে শিমুলের বাড়ি গিয়ে তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

এ সময় তিনি নিহতের স্ত্রীকে নগদ এক লাখ টাকা সহায়তা দেন। পাশাপাশি চাকরির প্রতিশ্রুতি দেন। সেই প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে বুধবার বিকেলে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ইডিসিএল কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠানের এমডি ডা. এহসানুল কবির জগলুলের কাছ থেকে নূরুন নাহারের পক্ষে নিয়োগপত্রটি গ্রহণ করেন সংসদ সদস্য হাসিবুর রহমান স্বপন। পরে আজ ওই নিয়োগপত্রটি শিমুলের স্ত্রীর হাতে তুলে দেন স্বপন।

এ ছাড়া সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দীকা নগদ ২৫ হাজার টাকা এবং শিমুলের সন্তানদের লেখাপড়ার দায়িত্ব নিয়েছেন।

সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাদপুর-এনায়েতপুর) আসনের প্রাক্তন সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য চয়ন ইসলাম শিমুলের ছেলেমেয়ে দুটির পড়াশোনার জন্য প্রতি মাসে পাঁচ হাজার করে টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে উল্লাপাড়া পৌর মেয়র এস.এম. নজরুল ইসলাম গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছেন, খুব শিগগিরই উল্লাপাড়া পৌরসভা থেকে নিহত শিমুলের স্ত্রীর হাতে আর্থিক সহায়তা পৌঁছে দেবেন।

প্রসঙ্গত, গত ২ ফেব্রুয়ারি শাহজাদপুরে দুগ্রুপের সংঘর্ষ চলাকালে গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষ চলাকালে দৈনিক সমকালের শাহজাদপুর উপজেলা প্রতিনিধি আব্দুল হাকিম পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে গুলিবিদ্ধ হন। পরে শিমুল চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম