সংবাদ শিরোনাম

 

এম এ আজিজ, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : বাংলাদেশ দেশীয় চিকিৎসক সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ইউনানী মেডিকেল বোর্ডের সদস্য ডাঃ মিজানুর রহমান বলেছেন, গ্রামগঞ্জের অভিজ্ঞজনের সংরক্ষিত জ্ঞানের ৫ হাজার বছর ধরে লালিত ও চিকিৎসা বিদ্যাকে বাচিয়ে রাখতে হলে উপযুক্ত প্রশিক্ষনের বিকল্প নেই।

ময়মনসিংহ ইউনানী মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে আজ শুক্রবার সকালে বাংলাদেশ দেশীয় চিকিৎসক সমিতির ময়মনসিংহ জেলা শাখার অনুষ্ঠিত আলোচনা সভার প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। ময়মনসিংহ ইউনানী মেডিকেল কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ আলহাজ হাকিম ফয়জুল ইসলাম নাবাতাতীর সভাপতিত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রুকনুজ্জামান রুবেল চৌধুরীর পরিচালনায় এ সভা হয়।
সভায় প্রধান অতিথি আরো বলেন, বাংলাদেশে অন্যান্য চিকিৎসকদের ন্যায় গ্রাম গঞ্জে প্রায় লক্ষাধিক হাকিম ও কবিরাজ ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।  এ সকল হাকিম ও কবিরাজগন প্রাণীজ, খনিজ ও উদ্ভিদ দিয়ে চিকিৎসা করে আসছে।
একজন বড় ডাক্তারের কাছে গেলে অনেক পরীক্ষা-নীরিক্ষা শেষে তারা ওষুধ দেন। এতে মোটা অংকের টাকার প্রয়োজন। সেই টাকা সংগ্রহ করতে অনেক সময় বিলম্ব হওয়ায় রোগী আরো অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। তাই গ্রামের অসহায় মানুষজন সামান্য অসুস্থ্য সর্দি কাশি হলেই হাকিম ও কবিরাজদের কাছে দৌড়ে যান এবং কয়েক টাকা খরচ করেই সুস্থ্য হয়ে উঠন। তাই এ সকল মানুষজনের প্রাথমিক চিকিৎসার একমাত্র ভরসা হলো হাকিম ও কবিরাজ। এ সব মানুষজন যাতে ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সেই খেয়াল রাখতে হবে। যুগের পরিবর্তন হয়েছে। টিকে থাকার স্বার্থে উপযুক্ত প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেদের অধিকার এবং প্রয়োগ সম্পর্কে সচেতন হতে হবে।
তিনি আরো বলেন, আমরা সরকারের সাথে আলোচনা করে আসছি সকল হাকিম ও কবিরাজ ওষুধ তৈরী এবং বিক্রি করতে পারবে।
জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ আশপাশ জেলা ও উপজেলা থেকে আসা প্রায় শতাধিক হাকিম ও কবিরাজদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথি আরো বলেন, ইউনানী চিকিৎসকদেরকে বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে সহকারী ডাক্তার হিসাবে নিয়োগ দিতে সরকারের প্রতি চাপ রয়েছে। এ জন্য আপনাদের সন্তানদেরকে ইউনানী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করে শিক্ষালাভ করুন। ইউনানী চিকিৎসকগনকে জেলা উপজেলা ও কমিউনিটি হাসপাতালগুলোতে সহকারী ডাক্তার হিসাবে নিয়োগ দিতে আমরা চেষ্ঠা করছি।
তিনি সংগঠন সম্পর্কে বলেন, নিজেদের অস্তিত্ত্ব রক্ষা এবং সকল ধরণের হয়রানী মুক্ত থাকতে সংগঠিত হওয়া প্রয়োজন। এ জন্য সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করতে হবে।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, ময়মনসিংহ ইউনানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ও সংগঠনের উপদেষ্টা প্রফেসর হাকিম মোঃ কামরুল ইসলাম নাবাতাতী। এছাড়া সভায় বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সভাপতি মোঃ চান মিয়া, সহ সভাপতি সুরুজ কবিরাজ, হাকিম শরীফ আহম্মেদ, জামালপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক হাকিম আয়নাল হক, নালিতাবাড়ীর উপজেলার হাকিম আবুল কাশেম, সহ সম্পাদক হাকিম রফিকুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মোঃ নিজাম উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক হাকিম খলিলুর রহমান, দপ্তর সম্পাাদক হাকিম শাহজাহান শাজু, প্রচার সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, ধর্ম সম্পাদক হাকিম জমিল উদ্দিন চিশতি, এনামূল হক, জাহাঙ্গীর আলম, আবু বকর সিদ্দিক, সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম