সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলা একাডেমিতে প্রধানমন্ত্রীর প্রয়াত বিশেষ সহকারী কবি মাহবুবুল হক শাকিলের ‘ফেরা না ফেরার’ গল্পগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে অতিথিরা -যুগান্তর
বইমেলা এখন শুধু একটা মেলা নয়। এ যেন এক বইয়ের উৎসব। সে উৎসব রঙিন হয়ে উঠে ছুটির দিনে। নানা বয়সী বইপ্রেমীর পদভারে মেলা পরিণত হয় লোকারণ্যে। হাতে হাতে থাকে বই, নানা রকমের বই। অনেকে ব্যাগ ভরে বই কিনে বাসায় ফেরেন। দ্বিতীয় শুক্রবার মেলা তেমনি সত্যিকারের বইয়ের উৎসবে পরিণত হয়েছিল।

এদিন মেলার দ্বার খুলে যায় বেলা ১১টায়। শিশুপ্রহর থাকায় সকালটা শিশুদের কলকাকলিতে মুখর হয়ে উঠে। সিসিমপুরের হালুম, ইকরি আর টুকটুকিরা গানে গানে মন ভরিয়ে দেয় তাদের। আর দুপুর পেরিয়ে বিকেল গড়াতেই মেলায় নামে জনস্রোত।

এদিকে প্রকৃতিজুড়েও শোনা যাচ্ছে পরিবর্তনের বার্তা। শীতের খোলস ছেড়ে বসন্তের আগমনের খবর শোনাচ্ছে বাতাস। মেলাজুড়েও শুরু হয়ে গেছে বসন্তের আবহ। বিশেষ করে তরুণীদের মাথায় ফুলের টায়রা পরা দেখে বোঝা যাচ্ছে বসন্ত আসছে। বইমেলাও এখন যেন পূর্ণ যৌবনা। মেলায় শুক্রবারও এসেছিলেন কথাসাহিত্যিক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, আনিসুল হক আর হরিশংকর জলদাস। এদিনও তারা ব্যস্ত ছিলেন অটোগ্রাফ দিতে আর পাঠকদের সঙ্গে সেলফি তুলতে।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও কবি মাহবুবুল হক শাকিল ৬ ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেছেন। মৃত্যুর আগে তিনি লিখেছিলেন ছয়টি গল্প। সে গল্পগুলো নিয়ে শুক্রবার প্রকাশিত হয়েছে গল্পগ্রন্থ ‘ফেরা না-ফেরার গল্প’। এ গ্রন্থটির প্রকাশনা উৎসবে অংশ নিয়ে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান ঘোষণা দিয়েছেন, মাহবুবুল হক শাকিলের তিনটি কাব্যগ্রন্থ ও এই গল্পগ্রন্থটি নিয়ে তার রচনাসমগ্র প্রকাশ করবে বাংলা একাডেমি।

শুক্রবার ‘ফেরা না-ফেরার গল্প’র প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয় বাংলা একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে। এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান। শাকিলের গল্প নিয়ে কথা বলেন তিন খ্যাতিমান কথাশিল্পী সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ইমদাদুল হক মিলন ও মঈনুল আহসান সাবের। আরও বক্তব্য রাখেন শাকিলের বাবা ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বইটির প্রকাশক অন্যপ্রকাশের প্রধান নির্বাহী মাজহারুল ইসলাম। অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত ‘ফেরা না-ফেরার গল্প’ গ্রন্থটির প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। মূল্য দেড়শ’ টাকা।

এদিকে শুক্রবার বইমেলার যুক্ত প্রকাশনীর সামনে কবি হাবিবুর রহমান হাবুর দ্বিতীয় কবিতাগ্রন্থ ‘তাড়িত অ-বলা ধ্বনি’ এর পাঠ উদ্বোধন অনুষ্ঠান হয়। এ আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন কবি আবু হাসান শাহরিয়ার, দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশের বার্তা সম্পাদক তারিক-উল ইসলাম, কবি জামিল রায়হান, কবি আপেল আবদুল্লাহ, কথাসাহিত্যিক উম্মে মুসলিমা প্রমুখ। অনিন্দ্য প্রকাশের সামনে শাহ আলম সাজুর উপন্যাস ‘তুমি বৃষ্টিময়ী’র মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান হয়। মোড়ক উন্মোচন করেন অভিনেতা তারিক আনাম খান।

এদিন মেলায় এসেছে কবি মুস্তাফিজ শফির দুটি নতুন বই। এর মধ্যে উপন্যাস ‘ঈশ্বরের সন্তানেরা’ প্রকাশ করেছে কথাপ্রকাশ এবং তার আলোচিত আটটি ধারবাহিক প্রতিবেদন নিয়ে ‘নির্বাচিত অনুসন্ধান’ প্রকাশ করেছে রয়েল পাবলিশার্স। এর আগে মেলায় অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশ পেয়েছে তার কবিতার বই ‘মায়া মেঘ নির্জনতা’। আজ শনিবারও মেলা শুরু হবে বেলা ১১টায় এবং চলবে রাত ৮টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত। আজও মেলায় থাকবে শিশুপ্রহর।

নতুন বই : বাংলা একাডেমির তথ্যমতে, শুক্রবার নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে ৩১৩টি এবং ৪৩টি নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। মেলায় প্রকাশ হয়েছে ধ্রুবপদ থেকে ড. কাজী জাহেদ ইকবালের ‘বাংলাদেশের সংবিধান সংশোধনী (১৯৭২-১৯৮৮) : প্রেক্ষাপট ও পর্যালোচনা’, অনন্যা থেকে আফজাল হোসেনের ‘কোন জোনাকি অন্ধকার চেনে না’, অন্বেষা থেকে আনিসুল হকের ‘হাসির গল্প সমগ্র’, অন্যপ্রকাশ থেকে মোহিত কামালের ‘বিষাদনদী’, অন্যপ্রকাশ এনেছে প্রভাস আমিনের ‘সুখী মানুষের জামা’, পিয়াস মজিদের ‘স্মৃতিসত্তার সৈয়দ হক’, অনুপম এনেছে আনিসুল হকের ‘সুলতান সুলেমান কি দেখব, অর্পণা?’, পাঞ্জেরি এনেছে সুমন্ত আসলামের ‘ভালো ছেলেগুলোর দুর্দান্ত মিশন’, ফরিদুর রেজা সাগরের ‘প্যার্টিকের গরিলা ও অন্যান্য গল্প’, অক্ষর প্রকাশনী এনেছে সেলিনা হোসেনের ‘কিশোর গল্প সংকলন’, কাকলী এনেছে রকিব হাসানের ‘ক্যারাবিয়ানের জলদস্যু’, নির্মলেন্দু গুণের ‘দেশান্তর’ ও ‘কালো মেঘের ভেলা’, সুলেখা প্রকাশনী এনেছে সেলিনা হোসেনের ‘সাগর’, অনিন্দ্য প্রকাশ এনেছে মোশতাক আহমেদের ‘রিবিট ও দুলাল’, সেলিনা হোসেনের ‘পোকামাকড়ের ঘরবসতি’, নাগরী এনেছে আবু হাসান শাহরিয়ারের ‘চম্পু বচন’, ‘আবু হাসান শাহরিয়ার প্রবন্ধ সংগ্রহ’, কলি প্রকাশনী এনেছে ইকবাল খন্দকারের ‘অন্ধ গোয়েন্দা’, চন্দ্রাবতী একাডেমি এনেছে আনিসুজ্জামানের ‘কথার কথা’, মুহম্মদ জাফর ইকবালের ‘মিতুল ও তার রোবট’, অনন্যা এনেছে হানিফ সংকেতের ‘সৎ খোঁজার পথ খোঁজা’, আবিষ্কার এনেছে আলম তালুকদারের ‘নাট বল্টু ঢিলা’, বিদ্যা প্রকাশ এনেছে মোহিত কামােেলর ‘তবু বাঁধন’, অ্যাডর্ন পাবলিকেশন্স এনেছে মিনার মনসুরের ‘অতল জলের টানে’, সময় এনেছে মুনতাসীর মামুনের ‘রাজাকারের মন’, অবসর এনেছে তুষার দাশের ‘নিঃশব্দ বজ আহসান হাবীর-এর কবিতা’, চৈতন্য থেকে বিনয় দত্তের গল্পগ্রন্থ ‘চিলতে মেঘ ও কুহুকেকার গল্প’।

শুক্রবারের আয়োজন : অমর একুশে উদযাপন উপলক্ষে শুক্রবার সকালে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয় শিশুকিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করেন শিল্পী সমরজিৎ রায়চৌধুরী। ক-খ-গ তিন শাখায় ৬৪০ প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষণা করা হবে।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম