সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া ডেস্ক : হায়দ্রাবাদে একমাত্র টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩২২ রান সংগ্রহ করেছে সফরকারী বাংলাদেশ। ক্রিজে রয়েছেন দুই অপরাজিত টাইগার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম ও মেহদি হাসান মিরাজ। মুশফিকের ঝুলিতে আছে ৮১ রান আর মিরাজের আছে ৫১ রান।

শনিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) স্বাগতিক ভারতের পাহাড়সম রানের জবাবে হাতে থাকা আগের দিনের ১ উইকেটে ৪১ রান নিয়েতৃতীয় দিনের মতো মাঠে নেমেন টাইগার ব্যাটসম্যানরা। দিনের শুরুতেই মাঠে নেমে এদিন তামিম ইকবালের উইকেটটি হারায় বাংলাদেশ। এরপর একে একে সাজঘরমুখি হন মুমিনুল ও মাহমুদউল্লাহ। সাকিব এসেই মূলত ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন এদিন। এর মাঝে সাব্বির এসে সুবিধা করতে না পারলেও শেষ পর্যন্ত ক্রিজে টিকে থেকে লড়াই চালিয়ে যান অধিনায়ক মুশফিক ও তরুণ অলরাউন্ডার মিরাজ।

দিনের শুরুতে এদিন তৃতীয় ওভারে সাজঘরে ফিরেন তামিম। ইনিংসের ১৭তম ওভারে ভুবনেশ্বর কুমারের করা চতুর্থ ডেলিভারিতে দ্রুত দুই রান নিতে গিয়ে রান আউটের শিকার হয়েছেন এই টাইগার ওপেনার। সাজঘরে ফেরার আগে তার ব্যক্তিগত সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩টি চারের সাহায্যে ৫৩ বলে ২৫ রান। তামিম ফিরে যাওয়ার পর মুমিনুলের সঙ্গে উইকেটে যোগ দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

মাহমুদউল্লাহ ও মুমিনুল জুটি দলে ২০ রান যোগ করেন। এরপরই মুমিনুল এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে ফিরে যান সাজঘরে। যাওয়ার আগে তিনি স্কোরবোর্ডে জমা করেন মাত্র ১২ রান।

পরপর উইকেট হারিয়ে একটু চাপের মুখেই পড়েছিল সফরকারীরা। এসময় দলের হাল ধরেন টাইগারদের বিশ্বখ্যাত অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে সঙ্গে নিয়ে দলীয় শত রান পার করান বাংলাদেশের। এর কিছু পরেই সাজঘরের পথ ধরেন মাহমুদউল্লাহ। ফেরার আগে ৪টি চারের সাহায্যে তিনি সংগ্রহ করেন ২৮ রান।

দলীয় ৪৩ ওভাররে সময় মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। এ সময় তাদের স্কোর ১২৫ রান। ব্যাটিংয়ে অপরাজিত থাকেন সাকবি ও মুশফিক। বিরতি থেকে ফিরে ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন সাকিব। এটি তার টেস্ট ক্যারিয়ারের ২১তম হাফসেঞ্চুরি। আর ভারতের বিপক্ষে টেস্টে এটাই প্রথম হাফসেঞ্চুরি।

সাকিব ও মুশফিকের দারুণ ব্যাটিংয়ে দলীয় ২০০ রান আসে বাংলাদেশের। তবে সেঞ্চুরির আশা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত ব্যক্তিগত ৮২ রানে অশ্বিনের বলে আউট হন সাকিব। ১০৩ বলে ১৪টি চারের সাহায্যে নিজের ইনিংস সাজান বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। এর আগে মুশফিকের সঙ্গে তিনি ১০৭ রানের পার্টনারশিপ গড়েন।

সাকিব ফিরে গেলে ক্রিজে আসেনসাব্বির রহমান।তবে খুব বেশিক্ষণ তিনি থিতু হতে পারেননি উইকেটে। ব্যক্তিগত ১৬ রানে রবীন্দ্র জাদেজার বলে এলবিডাব্লিউয়ের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন এ ব্যাটসম্যান।

চা-বিরতির পর হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন অধিনায়ক মুশফিক। ১৩৩ বলে ৬টি চারের সাহায্যে ক্যারিয়ারে১৬তম হাফসেঞ্চুরি তুলেতিনি। সেই সঙ্গে দিনশেষে অপরাজিত ৮১ রান সংগ্রহ করার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশের তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে তিন হাজারি রানের ক্লাবে ঢুকে পড়েন মুশফিক। মুশফিকের হাফসেঞ্চুরির পর টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন তরুণ অলরাউন্ডার মেহদি হাসান মিরাজ। শেষ পর্যন্ত ৫১ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন এই তরুণ তুর্কি।

এর আগে ৬ উইকেট হারিয়ে ৬৮৭ রান তুলে প্রথম ইনিংস ডিক্লেয়ার করে স্বাগতিক ভারত। জবাবে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ওপেনার সৌম্য সরকারকে হারিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ।

এদিকে গেলবৃহস্পতিবার(৯ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় রাজি গান্ধি স্টেডিয়ামে টেস্টের শুরুরদিনেটস জিতে ব্যাটিং বেছে নিয়েছিল ভারত।৩ উইকেটে ৩৫৬ রান সংগ্রহ করেছিল স্বাগতিক ভারত। এরপর দ্বিতীয় দিনে (শুক্রবার)নিজেদের ইনিংসের চার সেঞ্চুরির সুবাদে পাহাড়সম রান সংগ্রহ করে বিরাট কোহলির দল। যেখানে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকান অধিনায়ক কোহলি।

এই ইনিংসে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ৩টি উইকেটে নিয়েছেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। এ ছাড়া স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ ২টি ও পেসার তাসকিন আহমেদ একটি উইকেট নিয়েছেন।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম