সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : পদ্মা সেতুতে দূর্নীতি প্রমাণ না হওয়ার মধ্য দিয়ে বিশ্বব্যাংক চপেটাঘাত খেয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। একইসঙ্গে পদ্মাসেতু নিয়ে দুর্নীতির অপবাদ যে মিথ্যা ছিল তা প্রমাণিত হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রবিবার (১২ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে জনতা ব্যাংকের বার্ষিক সম্মেলন-২০১৭ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী জানান, পদ্মা সেতু নিয়ে দূর্নীতির নামে কলঙ্কের বোঝা চাপানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। যেখানে কিছু লোক ষড়যন্ত্র করেছিল। এক্ষেত্রে নোবেল বিজয়ী প্রফেসর ড. ইউনুস, আমেরিকার সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের নাম এসেছে। এছাড়া এ মিথ্যা অপবাদের সাথে কিছু টকশো বিশেষজ্ঞ সুর মিলিয়েছেন। এখন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সুরে বলব, ‘এদের ক্ষমা চাওয়া উচিত।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর ন্যায় অন্যায়ের সঙ্গে মাথা নত করার মতো নয় বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী। যে কারণে তিনি নিজ অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ শুরু করেছেন। আর বলেছিলেন পদ্মা সেতুতে কোন অনিয়ম হয়নি, যা প্রমাণিত হয়েছে।

এদিকে সবকিছুতে রাজনীতি ঢুকানো ঠিক না বলে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ব্যাংকিং খাতে কোন অভিজ্ঞতা নেই এমন অনেকে বিভিন্ন সরকারি ব্যাংকের পরিচালক হয়েছেন। যারা জনগণকে সেবা দেওয়ার পরিবর্তে নিজের সেবা নিয়েছেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, ব্যাংকিং খাত একটি সংবেদনশীল খাত। তাই সবাইকে যত্মবান হয়ে কাজ করতে হবে। একইসঙ্গে শীর্ষ ঋণ খেলাপির তালিকা করে ঋণ আদায়ে গুরুত্ব দিতে হবে এবং যাতে কোন অনিয়ম না হয় সেদিকে নজর বাড়াতে হবে। নতুন কোন ঋণ যেন খেলাপি না হয় সেদিকে নজর দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান শেখ মো. ওয়াহিদ-উজ-জামান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আব্দুস সালামসহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম