সংবাদ শিরোনাম

 

ক্রীড়া ডেস্ক : লিগের শুরুতে আলাভেসের বিপক্ষেই হোঁচট খেয়েছিল কাতালান ক্লাব বার্সেলোনা। তবে ফিরতি পর্বের ম্যাচে সেই শোধ বেশ ভালোভাবেই তুললেন মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা। তাদের দাপটেই আলাভেসের জালে গোলউৎসবে মেতেছিল বার্সা।

শনিবার আলাভেসের মাঠে ৬-০ গোলে জয় পেয়েছে বার্সা। দলে জয়ে জোড়া গোল করেছেন লুইস সুয়ারেজ। এছাড়া একটি করে গোল করেছেন নেইমার, মেসি, ইভঅন রাকিতিচ। অন্য গোলটি আত্মঘাতী।

এর আগে সেপ্টেম্বরে ন্যু ক্যাম্পে ২-১ ব্যবধানে জিতেছিল আলাভেস। তাই ফিরতি পর্বের ম্যাচে বার্সার বিপক্ষে তারা বেশ আত্মবিশ্বাসীই ছিল। আক্রমণ পাল্টা-আক্রমণে বেশ ভালো শুরু করেছিল তারা। যদিও পরে তাদের সেই আত্মবিশ্বাস পুরোই ভেঙে দিয়েছে লুইস এনরিকের শিষ্যরা।

এনরিকের শিষ্যদের গোলের অপেক্ষা শেস হয় ৩৭তম মিনিটে। দারুণ গোছানো এক আক্রমণে ডান দিক থেকে ভিদালের ক্রসে কাছ থেকে প্রথম ছোঁয়াতেই জালে পাঠান সুয়ারেজ।

তিন মিনিট পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার। বাঁ-দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢোকা সুয়ারেজের উদ্দেশে উঁচু করে বল বাড়িয়েছিলেন মেসি। পাচেকো এক হাত দিয়ে ঠেকানোর চেষ্ট করলে বল সুয়ারেজের মাথায় লেগে নেইমারের পায়ে এসে পড়েছিল।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে সহজ সুযোগ নষ্ট করে স্বাগতিকরা। এদিকে সুযোগ পেয়ে তা মোটেও হাতছাড়া করেননি মেসি। তিনি ৫৯তম মিনিটে বাঁ-দিক থেকে গোলরক্ষকের পায়ের ফাঁক দিয়ে বল জালে পাঠান তিনি। এই গোলেই বার্সার জয় অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায়। এরপর পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে আরও তিনবার বল জালে পাঠায় অতিথিরা।

৬৩তম মিনিটে মেসির পা থেকে এরনান্দেস বল কেড়ে নিলেও আলেক্সিসের পায়ে লেগে ভিতরে ঢুকে যায়। দুই মিনিট পর ডান দিক থেকে চমৎকার শটে লক্ষ্যভেদ করেন রাকিতিচ। এর দুই মিনিট পর নেইমারের নিচু শট গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে ঠেকালেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ফিরতি শটে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন উরুগুয়ের স্ট্রাইকার।

১৮ গোল নিয়ে আবারও সতীর্থ মেসিকে ছাড়িয়ে এককভাবে গোলদাতার তালিকায় শীর্ষে উঠলেন সুয়ারেজ। মেসির গোল ১৭টি।

এই জয়ে ২২ ম্যাচে ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয়স্থানে রয়েছে বার্সা।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম