সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : পদ্মাসেতুতে দুর্নীতি চেষ্টার অভিযোগে করা মামলা কানাডার আদালতে অসত্য প্রমাণ হওয়ার পর এ বিষয়ে বিশ্বব্যাংকের জবাবের অপেক্ষায় আওয়ামী লীগ। জাতীয় সংসদে বিশ্বব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলা এবং তাদেরকে তলবের দাবির মধ্যেই দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ কথা বললেন।

সোমবার বিকালে রাজধানীর খামার বাড়ির কৃষিবিদ ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে ‘কৃষিবিদ দিবস’ এর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন। এখানে সরকার পরিচালনা, কৃষির উন্নয়নে সরকারের নানা চেষ্টাসহ বিভিন্ন বিষয় উঠে আসে। তবে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পায় কানাডার আদালতে পদ্মাসেতুতে দুর্নীতির চক্রান্তের মামলা নাকচ হওয়ার প্রসঙ্গ।

২০১৩ সালের জুনে পদ্মাসেতু প্রকল্পে অর্থায়ন বাতিল করে বিশ্বব্যাংক। এর আগে তিন বছর ধরেই সংস্থাটি এই প্রকল্পে দুর্নীতি চেষ্টার অভিযোগ তুলতে থাকে। তাদের দাবি ছিল, কানাডার পরামর্শক প্রতিষ্ঠান এসএনসি লাভালিনের কর্মকর্তাদরা কাজ পেতে ঘুষ দেয়ার চক্রান্ত করেছিল। এই অভিযোগে বিশ্বব্যাংক সে সময়ের যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছিল। তবে সরকার তাতে রাজি হয়নি।

একই অভিযোগে কানাডার আদালতে মামলা চলছিল এসএনসি লাভালিনের তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। স্থানীয় সময় শুক্রবার এই মামলার রায় প্রকাশ হয়। বিচারক তিন আসামিকে খালাস দিয়ে বলেছেন, বিশ্বব্যাংকের অভিযোগ ছিল গালগপ্প। গুজবের ওপর ভিত্তি করে এই মামলা করা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন বিচারক।

পদ্মাসেতু প্রকল্পে দুর্নীতি চেষ্টার অভিযোগ তুলে অর্থায়ন বাতিল করার বিবৃতিতে বিশ্বব্যাংক বলেছিল, ‘কোথাও দুর্নীতি হলে আমরা চোখ বুঁজে থাকতে পারি না।’ তবে তাদের অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণের পর এ বিষয়ে সংস্থাটি আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য দেয়নি।

কানাডা আদালতের রায়ের পর সরকারি দলের নেতারা বিশ্বব্যাংকের প্রতি তীব্র ক্ষোভ জানিয়েছেন। সংস্থাটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া যায় কি না-এই ধরনের প্রশ্নের মধ্যে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক রবিবার সংসদকে বলেছেন, এই ঘটনায় দেশ এবং দেশের বাইরে দুই জায়গাতেই ব্যবস্থা নেয়া যায়। আর কানাডার আদালতের রায়ের কারণে মামলার আসামি কারা সেটাও জানা হয়ে গেছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিশ্বব্যাংকের বিরুদ্ধে মামলা হলে তিনি খরচ দেবেন। জাসদ নেতা মইনুদ্দীন খান বাদল বলেছেন, তিনি ও চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ নেতা খন্দকার মোশাররফ হোসেন বাদী হতে রাজি আছেন।

পরদিন আলোচনায় অংশ নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেছে, ‘পদ্মাসেতু প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্র নিয়ে কানাডার আদালত রায় দিয়েছে। বিশ্ব ব্যাংক এখন কী বলে দেখি, তাদের কী বলার আছে তা জানতে চাই। আমরা বিশ্ব ব্যাংকের জবাবের অপেক্ষায় আছি।’

আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘পদ্মাসেতু আজ আমাদের সক্ষমতার প্রমাণ, সারা বিশ্বের কাছে সম্মানের বিষয়। আমরা বিশ্বব্যাংককে চ্যালেঞ্জ দিয়েছিলাম, বলেছিলাম নিজ অর্থায়নে সেতু নির্মাণ করবো। আজ প্রমাণ হয়েছে বাঙালি বীরের জাতি, চোরের জাতি না।’

পদ্মাসেতুতে দুর্নীতির ষড়যন্ত্র নিয়ে বিশ্বব্যাংকের তোলা অভিযোগের কথা তুলে ধরে আজ ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কত অপমান, কত অসম্মান হতে হয়েছে। আমরা হতাশায় নিমজ্জিত হয়ে গিয়েছিলাম। অনেকেই টিটকারি করেছে, বিদ্রুপ করেছে। কিছু কিছু পত্রিকাও সমালোচনা করেছে। বাদ যায়নি সুশীলরাও। তারাও টিভিতে নানা কথা বলেছে।’

বিশ্বব্যাংক পদ্মাসেতু থেকে সরে যাওয়ার পর আরও তিন আন্তর্জাতিক সংস্থা জাইকা, এডিবি, আইডিবির ঋণচুক্তিও বাতিল হয়ে যায়। এরপর সরকার নিজ অর্থে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করে। এরই মধ্যে সেতুর ৪০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে পুরো কাজই শেষ হবে বলে জানাচ্ছে সরকার।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আজ প্রমাণিত হয়েছে, পদ্মা সেতু স্বচ্ছতার মধ্য শুরু হয়েছিল। আর আঠারো সালের শেষের দিকে একই রকম স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে শেষ হবে।’

কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটের সভাপতি এ এম এম সালেহ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, মহাসচিব খায়রুল আলম প্রিন্স প্রমুখ বক্তব্য দেন।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম