সংবাদ শিরোনাম

 

বিনোদন ডেস্ক : তারায় তারায় প্রেম। জোছনাপ্রিয় মানুষ দূর থেকে দেখে। জানতে চায়, কি কথা তারায় তারায়! হয়তো কেউ কেউ জানতে পারে অথবা অজানা থেকে যায় সারাজীবন। রুপালি পর্দার আকাশ আলো করে কোনো কোনো তারকা জুটি যখন গেয়ে ওঠেন জীবনের দৈত গান। সে গান শুনি, কান পেতে শুনি। ওই গান যে সব কথা দিয়ে গাঁথা হয়েছে সেই কথাগুলো জানতে ইচ্ছা করে।

আর এই ইচ্ছে থেকেই কথা হয় মডেল, অভিনেতা সাখাওয়াত সাগরের সঙ্গে। আমরা জানি, সাগরের তর্জন, গর্জন আর ভাঙনের সুর শোনার সদিচ্ছা নিয়ে যিনি তার কূলে ঘর বেঁধেছেন, তার নাম শম্পা হাসনাইন।

কে আগে কাছে এসেছিলেন? উত্তরে সাগর জানালেন, ‘শম্পা আগে কাছে এসেছে। কিন্তু ও আমাকে সরাসরি বলেনি ‘ভালোবাসি’। ২০১১ সাল ‘আই লাভ ইউ প্রিয়া’ সিনেমার শুটিং করতে করতে কাছাকাছি আসার সুযোগ হয়। তৈরি হয় ভালো লাগাও। শম্পা আমাকে বলেছিল, ‘আমি তোমার বিষয়ে সিরিয়াস’। ওই সময় আমি কোনো উত্তর দিতে পারিনি। কারণ তার আগ পর্যন্ত আমি কিছু ভেবেছিলাম কিনা বুঝে উঠতে পারছিলাম না। তবে ওর সব কাজ আমার ভালো লাগত। হয়তো ওর প্রতি দুর্বলতার কারণে। আমি কিছু দিন ভেবেছি, তারপর মনে হলো- আমিও ভেতরে ভেতরে ওর উপস্থিতি অনুভব করছি। এটা অস্বীকার করার ক্ষমতা আমার নেই। আমার পাশে তাকে চাই। আমার দুর্বলতা জানানোর জন্য ভালোবাসা দিবসকেই বেছে নিয়েছিলাম।’

শম্পা হাসনাইন এবার আপনিই বলুন, সাগর সাখাওয়াতকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিলেন কীভাবে? ‘প্রেম প্রকাশ করার ক্ষমতা সাগরের জিরো! এক রকম বলতে গেলে আরেক রকম বলে। ও কখনই বলেনি আমাকে ভালোবাসে। আমি বুঝে নিয়েছি (হা হা হা)। ২০১২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি। আমাকে ফোনে জানাল, দেখা করতে চায়। তাও আবার বাসায়। হ্যাঁ, বাসায়ই দেখা করলাম। ঠিক সন্ধ্যা নামার আগে সাগর এলো। আমাকে জানাল, সে আমাকে কিছু দিতে চায়। একটা চেইন দিয়েছিল সেদিন। লকেটসহ চেইন। আর একটা কথা বলতে হয়। চেইনটা নিজ হাতে পরিয়ে দিয়েছিল। তারপরও বলল না, ‘ভালোবাসি’।

সাগর সাখাওয়াত, এই অভিযোগ কি সত্য?

‘ভালোবাসি বলেই তো দিয়েছিলাম। সব কথা বলতে হবে কেন? এখন পর্যন্ত ও আমাকে কনফিউজড করে দেয়। এই একই কথা বলে। ‘আমি নাকি ভালোবাসি না’ ও আমাকে বেশি ভালোবাসে। ও ঠিক এতটা জোর দিয়ে বলে মাঝে-মধ্যে আমি দ্বিধায় পড়ে যাই।

আপনাদের মধ্যে কে বেশি রোমান্টিক?

সাগর : জানি না!

শম্পা : অবশ্যই আমি।

কে বেশি কেয়ারফুল?

সাগর : আমি

শম্পা : সাগর

এবার ভ্যালেনটাইন ডে-এর পরিকল্পনা কি?

শম্পা জানালেন, এবার এই দিনে দুজনের দেখা হচ্ছে না। তবে দূরে থাকা প্রেমিক-প্রেমিকার মতো দিনটি উদযাপন করবেন। কারণ শুটিংয়ের কাজে তাকে থাকতে হবে বরিশালে। এদিকে রাজধানীতে থাকবেন সাগর।

সাগর জানালেন, ‘যে কয়দিন দেখা হবে না, ভেবে নেব ভালোবাসা দিবস আসেনি। এরপর দেখা হলে দিনটি হবে একান্তই আমাদের। অবশ্যই নিজেদের মতো করে উদযাপন করব।’

কিন্তু সাখাওয়াত সাগর ভালোবাসি কথাটি বলতে পারেননি বলে আপনার প্রতি শম্পার যে অভিযোগ তার কি হবে?

‘এই ভালোবাসা দিবসে শম্পাকে জানিয়ে দিলাম, ভালোবাসি তোমাকে। অনেক-অনেক-অনেক বেশি ভালোবাসি। আর ভালোবাসি তোমার অভিযোগ। আমি চাই তুমি আজীবন অভিযোগ করো। আমি ভয় পাই আর ভালোবাসি।’

চলুক খুনসুটি। ফিরে ফিরে আসুক এক একটি বসন্ত। ফিরে আসুক আরো আরো ভালোবাসা দিবস। অখণ্ড শুভেচ্ছা রইল।

২০১৫ সালের ১৫ আগস্ট বাস্তবে জুটি বাঁধেন তারা। এনটিভির রিয়েলিটি শো ‘সুপার হিরো সুপার হিরোইন’ প্রতিযোগিতার পর সাগর ও শম্পা জুটি হয়ে চারটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। ‘আই লাভ ইউ প্রিয়া’ ও ‘মনের মধ্যে লেখা’ ছাড়া অন্য সিনেমার মধ্যে রয়েছে-  হাসান কামরুলের ‘এক্সকিউজ মি’ ও ফেরদৌস রেজার ‘ওয়ান ওয়ে রোড’।


মতামত জানান :

 
 
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম