সংবাদ শিরোনাম

 

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর সাত খুন মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি নূর হোসেনের সহযোগী ওয়াহিদুজ্জামান সেলিম নারায়ণগঞ্জ জেলা জজ  আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে আইনজীবীর মাধ্যমে জেলা ও দায়রা জজ সৈয়দ এনায়েত হোসেনের আদালতে আত্মসমর্পণ করলে শুনানি শেষে আসামিকে কারাগারের কনডেম সেলে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। এই মামলার রায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ছয় আসামিসহ মোট নয়জন পলাতক রয়েছে।

পাবলিক প্রসিকিউটর ওয়াজেদ আলী খোকন জানান, এই মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি নূর হোসেনের সহযোগী ওয়াহিদুজ্জামান সেলিম রায় ঘোষণার ৩০ দিনের মাথায় আদালতে আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করেছেন। আদালত তাকে কারাগারের কনডেম সেলে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে।

গত ১৬ জানুয়ারি আলোচিত সাত খুন মামলার রায়ে র‌্যাব-১১ এর সাবেক তিন কর্মকর্তা ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর নুর হোসেনসহ ২৬ জনকে মৃত্যুদণ্ড এবং নয় জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়। আসামিদের মধ্যে র‌্যাবের আট জনসহ ১২ আসামি পলাতক ছিল। এদের মধ্যে গত বৃহস্পতিবার মাগুরা থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি সার্জেন্ট এনামুল কবিরকে গ্রেপ্তার করে। গত রবিবার দীর্ঘ দিন পলাতক থাকার পর মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি র‌্যাবের সাবেক সৈনিক আবদুল আলিম আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। আজ মঙ্গলবার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি নূর হোসেনের সহযোগী সেলিম আদালতে আত্মসমর্পণ করলেন। বর্তমানে সাত খুন মামলার দণ্ডপ্রাপ্ত ১০ আসামি পলাতক রয়েছে। তার মধ্যে  র‌্যাবের ছয়জন। বর্তমানে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ছয় আসামিসহ নয় জন পলাতক রয়েছে।

২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম ও আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাতজনকে অপহরণের পর হত‌্যা করে লাশ ডুবিয়ে দেওয়া হয় শীতলক্ষ্যা নদীতে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম