সংবাদ শিরোনাম

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাতক্ষীরা : বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে এক বছরের জেল হলো প্রেমিকের। সাতক্ষীরার তালা উপজেলার ইসলামকাটি ইউনিয়নের ঘোনা গ্রামে মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পার্শ্ববর্তী ভবানিপুর গ্রামের সরজিত মন্ডলের মেয়ে ঘোনা পল্লী মঙ্গল হাইস্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। এদিকে ঘোনা গ্রামের মনিরউদ্দীন গাজীর ছেলে ইমরান হোসেন সুজন একই স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে ঘোনা গ্রামের ইমরানের বন্ধু জানান, স্কুলে যাতায়াতের সুবাদে পরিচয় হয় সুজন ও মিলার (ছদ্মনাম)। ছয় মাস আগে লেখাপড়া ছেড়ে ইমরান ইটভাটায় শ্রমিকের কাজে চলে যায়। মুঠোফোনে তাদের কথাও চলতে থাকে।

কিছুদিন আগে মেয়েটি অন্য একটি ছেলের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। এটা নিয়ে দুইজনের মধ্যে মান-অভিমান চলছিল। সোমবার রাতে বাড়িতে আসে ইমরান।

মঙ্গলবার স্কুল চলাকালে তারা বিদ্যালয়ের পেছনে গিয়ে কথা বলছিল। সেখানে দুইজনের মধ্যে তর্ক হয়। এসময় মেয়েটির এক বান্ধবী এসে বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জানালে শিক্ষকরা গিয়ে মেয়ে ও ছেলেটিকে বিদ্যালয়ের পেছনের রাস্তায় গিয়ে একত্রে ধরে ফেলে।

এরপর সুজনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট সুজনকে এক বছরের কারাদণ্ড দেন। এসময় দুইজনের এক সঙ্গে তোলা বেশ কিছু ছবি ও চিঠিপত্রও পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ফরিদ হোসেন বলেন, মেয়েটিকে ইভটিজিং করায় সুজনকে এক বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম