সংবাদ শিরোনাম

 

মো: রাসেল হোসেন, ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম : ‘ভালোবাসি, ভালোবাসি– এই সুরে কাছে দূরে জলে স্থলে বাজায় বাঁশি।’ ভালোবাসার এই সুর যেন ভেসে বেড়াচ্ছে গোটা দেশ।

গতকাল সোমবার ছিল পয়লা ফাল্গুন, বসন্তের প্রথম দিন। ফাল্গুনের দ্বিতীয় দিন ১৪ ফেব্রুয়ারি সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও উদযাপিত হচ্ছে ভ্যালেন্টাইন ডে বা ভালোবাসা দিবস।

রাজধানীর শাহবাগ ও এর আশপাশের এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, বাসন্তী রঙের পোশাক পরে ভালোবাসার মানুষটির হাত ধরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তরুণ-তরুণীসহ প্রায় সব বয়সি মানুষ। বাহারি নকশার শাড়ি, কামিজ আর ফুলেল অলঙ্কারে সজ্জিত নারী এবং পাঞ্জাবি বা ফতুয়ায় সজ্জিত পুরুষের উচ্ছ্বল উপস্থিতি শহরকে বর্ণিল ও প্রাণবন্ত করেছে।

প্রতিবারের মতো এবারও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও আশপাশের এলাকা, বিভিন্ন উদ্যান আর বিপণীবিতানে তরুণ-তরুণীদের উপছেপড়া ভিড়। ফুল বিনিময়, ভালোবাসার বাণী উৎকীর্ণ কার্ড, চকলেট, বই উপহার আর মুঠোফোনে সংক্ষিপ্ত বার্তা বিনিময়ের মধ্যদিয়ে প্রকাশ করছেন একে অন্যের প্রতি ভালোবাসা। দিনটি উপলক্ষে প্রিয়জনকে নিয়ে খাওয়া-দাওয়া আর আড্ডা তো আছেই।

শাহবাগ থেকে শুরু করে টিএসসি, কলা ভবন, হাকিম চত্বর, ভিসি চত্বর সর্বত্রই লাল, হলুদ আর গোলাপির ছড়াছড়ি। তরুণীরা পরেছেন নানা বাহারি সালোয়ার-কামিজ আর শাড়ি। হাতে কাচের চুড়ি। মাথায় ফুলের ব্যান্ড। তরুণরা পরেছেন পাঞ্জাবি-পায়জামা। সবার হাতেই হরেক রকমের ফুল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসজুড়ে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে তরুণ-তরুণীর ছাড়াও অনেকে পরিবারের সদস্য আর প্রিয়জনকে নিয়েও এসেছেন বেড়াতে। শাহবাগে ফুলের দোকানে গিয়ে দেখা যায় ব্যাপক ভিড়।

এক ফুলের দোকানি বলেন, গতকালও এমন ভিড় ছিল। আজকেও থাকবে। আবার ২১ ফেব্রুয়ারিতেও ভালোই বেচাকেনা হয়ে থাকে। বিশেষ এ দিনগুলোতে শুধু আমাদের এখানে নয় রাজধানীর প্রত্যেক ফুলের দোকানে এমনই ভিড় থাকে।
mela20170214191436
অন্য সময় যেসব ফুলের ব্যান্ড ৩০ টাকায় বিক্রি হয় গতকাল ও আজ সেগুলো বিক্রি হয়েছে ৫০ থেকে ১০০ টাকায়। ক্ষেত্র বিশেষে ১৫০ টাকাতেও বিক্রি হয়েছে। ক্যাম্পাসে বেড়াতে আসা এক তরুণী জানান, তিনি একটি গোলাপ কিনেছেন ৩০ টাকায়।

বেলা বাড়ার সাথে সাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বেড়ে যায় প্রেমিকযুগলের ভিড়। বিশেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহবাগ এলাকা থেকে ক্যাম্পাস ঘুরে বইমেলায় ঢুঁ মারছেন সবাই। হাতে হাত রেখে দিনভর ঘুরে বেড়াচ্ছেন প্রেমিকযুগলরা। তাদের হাতে গোলাপ-রজনীগন্ধা কিংবা অন্য কোনো ফুল। দুপুর গড়িয়ে বিকেল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরের আশপাশে মানুষের ঢল নামে। তরুণ-তরুণীদের ভিড়ে ঠাসা ক্যাম্পাস ও তার আশপাশের রেস্তোরাঁ ও আর ক্যাফেগুলো।

ভালোবাসা দিবসে পুরো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাজুড়ে নেওয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থা। ক্যাম্পাস এলাকায় সব ধরনের যানচলাচল সীমিত করা হয়েছে। টিএসসির পুরো এলাকায় সব ধরনের যানচলাচল বন্ধ করা হয়েছে। যেকোনো বিশৃঙ্খলা এড়াতে ক্যাম্পাসের মোড়ে মোড়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর সদস্যদের সরব উপস্থিতি রয়েছে।


মতামত জানান :

 
 
আরও পড়ুন
 
কপিরাইট © ময়মনসিংহ প্রতিদিন ডটকম - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | উন্নয়নে হোস্টপিও.কম